পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৩৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ৰিৰিখ *G2s কপোত উড়িয়া বাট আসিবামাত্র তাহার সকল গোষ্ঠী ৰাটীর পুষ্করিণীতে ডুবিয়া প্রাণত্যাগ করিল। দেবপালও কপোত উড়িয়া যাইবামাত্র এক উত্তম ঘোড়াতে আরোহণ করিয়া বাটী আসিয়া দেখে ষে সকল পরিজন ডুবিয়া মরিয়াছে। পরে বিবেচনা করিল যে তবে একেলা আমার জীবন নিষ্ফল আমি প্রাণত্যাগ করি। ইহা ভাবিয়া আপনিও ঐ পুষ্করিণীতে ডুবিয়া মরিল। এই রূপ কথা অনেকে কহেন কিন্তু এ অমূলক কথায় প্রামাণ্য হয় না কিন্তু সে স্থানে যেমতই বাটীর সংস্থান আছে তাহাতে জানা যায় যে এ বাট যাহার ছিল সে অতিবড় লোক ও অনুমান হয় যে অতিবিস্তর দিনেরও নয় এবং লোকেরা প্রায় কথায়২ ঐ দেবপাল রাজার দৃষ্টান্ত দেয় অতএব ইহার মূল জানার অত্যাবগুক যদি ইহার মূল কেহ জানেন তবে অনুগ্রহ করিয়া ঐরামপুরের ছাপাখানাতে পাঠাইলে তাহার মূল জানা যায়। ( ৯ জানুয়ারি ১৮১৯ । ২৭ পৌষ ১২২৫ ) কাটোয়। —ষখন বাঙ্গালা দেশ মুরশেদাবাদের নবাবের অধীন ছিল তখন কাটোয়াতে নবাবের দৌলতখান ছিল এবং বাঙ্গালার খাজনার টাকা সেইখানে জমা হইত এই হেতুক নবাব ঐ মোকামে একটা মৃত্তিকার গড় করিয়াছিলেন এখন সে গড় অনেক লুপ্ত হইয়াছে কিন্তু তাহার দক্ষিণ দিকে গড়ের কিঞ্চিৎ অনুভব হয় এবং একটা তোপ অদ্যাপি অবশিষ্ট আছে । ( ১৯ জুন ১৮১৯ । ৬ আষাঢ় ১২২৬ ) বাঙ্গালার সিংহাসন –গুবে বাঙ্গালার নবাবের যে সিংহাসন ছিল সে সিংহাসন যুদ্ধের সময়ে হেষ্টিংস সাহেবের হস্তগত হইয়াছিল সে সিংহাসন মণি মুক্ত প্রবালেতে ভূষিত হেষ্টিংস সাহেব যখন ইংগণ্ডে গেলেন তখন ঐ সিংহাসন ইংগ্লণ্ডের রাণীকে নজর দিলেন সে সিংহাসন ঐ রাণীর ঘরে অদ্যাপি আছে । ( ২৩ জানুয়ারি ১৮১৯ । ১১ মাঘ ১২২৫ ) জিলা বৰ্দ্ধমান ।--আটার শত তের ও চৌদ্দ সালে শ্ৰীযুত বেলিসাহেব জিলা বৰ্দ্ধমানের সকল বিবরণ অনেক উদ্যোগে একত্র করিয়াছেন সে এই । জিলা বৰ্দ্ধমানের মধ্যে জঙ্গল নাই সকল স্থানেই বসতি আছে। সেখানে দুই লক্ষ বাষটি হাজার ছয় শত চৌত্রিশ ঘর আছে তাহার মধ্যে জুই লক্ষ আটার হাজার আট শত তিল্পান্ন ঘর হিন্দু। এবং তেতাল্লিশ হাজার সাত শত একাশী ঘর মুসলমান। যদি প্রতিবাটতে অনুমানে সাড়ে পাঁচ জন মাহব ধরা যায় তবে বৰ্দ্ধমান জিলার মধ্যে চৌদ্দ লক্ষ চোঁয়াল্লিশ হাজার চারি শত সাতাশী জন লোক আছে এবং সে জিলাতে চতুরস্র বার শত ক্রোশ আছে সেখানে মুসলমান অপেক্ষীয় হিন্দু পাচ গুণ অধিক । সেখানে অনুমান জাত্যনুসারে এই গণনাতে এত লোক আছে ।