পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৪১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিবিধ こ*へ● (৬ অক্টোবর ১৮২৭ । ২১ আশ্বিন ১২৩৪ ) কোচ —এই জাতি অনেক মোরাঙ্গর মধ্যে রঙ্গনি পরসনাথ এবং কোম্পানি বাহাদুরের রাজ্যের ব্যাপ্যের মধ্যে মেঘ পহ্নবান পরগণা ও আর২ পূৰ্ব্বাঞ্চলে অনেক স্থানে বসতি করে ইহারদিগের স্ত্রীলোকের পরিধেয় মেক্‌লি অর্থাৎ চট বিশেষ তাহাও কটিদেশে না পরিধান করিয়৷ স্তমদ্বয়ের উপর পরিয়া থাকে স্বতরাং স্তনাবর্তনের অন্য বস্ত্র আবশুক করে না ইহারদিগের গ্রীলোকেরা যুবতি না হইলে বিবাহ করে না এবং কন্যা আপনি কম্ভাযাত্র বাদ্যকর ব্যতীত তাবৎ স্ত্রীলোক লইয়া বিশেষতঃ যত যুবতি একত্রিত হইয়া কন্যাকে বেষ্টন করিয়া বরের বাটতে বিবাহ করিতে যায় কুলাচার প্রমাণ বিবাহ হইলে পর বরপাত্র আপন ঘরের চালের উপর আরোহণ করিয়া কহে ষে আমি বিবাহ করিব না কারণ তোমাকে প্রতিপালন করিবার অামার ক্ষমতা নাই তাহাতে ঐ স্ত্রী কহে উঠ২ কোচের পুৎ ধোকড় খান বুনমু পোস্বপোওক বরপাত্র এই বাক্য শুনিবা মাত্র চালহইতে উত্তীর্ণ হইয়া কন্যাকে সিন্দুর দান করে তবে বিবাহ পূর্ণ হয় । ( ৬ অক্টোবর ১৮২৭ । ২১ আশ্বিন ১২৩৪ ) যসি --নেপালি যসিনামক এক প্রকার ব্রাহ্মণ অাছে তাহারদিগের উৎপত্তির বিবরণ এই যে বিধবা ব্রাহ্মণী ভ্ৰষ্ট হইলে তাহার গর্ভে যে সস্তান হয় তাহারা ধসি নামে খ্যাত হয় তাহারা BBBB BBB BBB BBBB BBBBB g BBB BBB BBB BBBB BB BB BB BBB বিশেষ আছে আর অন্য জাতির স্ত্রীলোক নষ্ট হইলে তৎক্ষণাৎ তাহার কর্ণ নাসিকা চ্ছেদন করিয়া এবং কেশ মুণ্ডন করিয়া তাহাকে দেশহইতে দূর করিয়া দেয় এবং তাহার স্বামী তাহার উপপতির প্রাণ দণ্ড যত দিনের পরে হউক বেকাননি তাহার সাক্ষাৎ পাইবেক তৎক্ষণাৎ জার হান এই শব্দ তিনবার উচ্চৈঃস্বরে বলিয়া তাহার প্রাণ দণ্ড করিবেক তাহাতে সে অপবাদী না হয় এবং নেপালের অধীন বিচারস্থানে পারিতোষিক পায় কিন্তু এমত কুকৰ্ম্ম ব্রাহ্মণহক্টতে হইলে তাহার প্রাণদণ্ড নিষেধ । ( ৬ অক্টোবর ১৮২৭ । ২১ আশ্বিন ১২৩৪ থারূ –মোরদে এই জাতিলোক অনেক বসতি করে ইহারদিগের পুরুষের এবং স্ত্রীলোকের বিবাহের কাল ইং ১ লাং ১০ বৎসরপর্য্যন্ত এই কালের মধ্যে তাবতের বিবাহ হয় এবং কথা যাবৎপৰ্য্যস্ত কস্তাবস্থা থাকে তাবৎ শ্বশুরালয় গমন করে না পূর্ণ যুবতি হইলে তাহার দ্বিরাগমন হয় তাহাতেও বিড়ম্বন শ্বশুরালয় যাইয়াও ক্রমশঃ পাচ ছয় মাস পর্যন্ত স্বামির সহিত আলাপ হয় না এবং তাহার হস্তে কোন দ্রব্যাদি আহার করে না একারণ নিষ্কলঙ্ক হইয়া উত্তীর্ণ। হইতে পারিলে তাহার বিবাহ সিদ্ধ আর যদি কোন স্ত্রীলোকের কোন কুকৰ্ম্মের অর্থাৎ ব্যভিচারিণীর লক্ষণ প্রকাশ হয় তবে তাহাকে তৎক্ষণাৎ ত্যাগ করে তাহাতে কস্তার পিতার কলঙ্ক