পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৪২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশিষ্ট—“বঙ্গদূত’ হইতে সঙ্কলিত ^&ఫి's সংখ্যায় নিযুক্ত হইলেন এখানে সভা স্থানে সভাপতি প্রভৃতি এতদ্বিষয়ে স্বস্ব অভিপ্রায় ব্যাখ্যায় প্ৰবৰ্ত্ত হইলেন ফলিতাৰ্থ ত্রষ্টী প্রভৃতিকে নিযুক্ত করণ প্রযুক্ত কোন বিশেষ বিবাদ শুনা যায় নাই কিন্তু কোষাধ্যক্ষের পক্ষে অনেক গোলযোগ হইয়াছিল যেহেতু শ্ৰীযুত বাবু রমানাথ ঠাকুর ও শ্ৰযুত বাৰু আশুতোষ সরকার তৎকৰ্ম্মাভিলাষী ছিলেন তজ্জন্ত অংশি সমূহের মধ্যে দুই দল হইয়াছিল সে যাহা হউক পূৰ্ব্বোক্ত বোটের সংখ্যাকারিরা নিভৃত স্থান হইতে প্রকাশ স্থানে দীপ্তমান হওনে সে সন্দেহ এককালে লোপ হইল অর্থাৎ তাহারা কহিলেন যে ঠাকুর বাবুর পক্ষে অংশিদিগের সম্মতিপত্র গণনায় প্রায় সপ্ততি সংখ্যা পর্য্যস্ত অতিরিক্ত হইয়াছে এমতে সেই পক্ষের সন্মতি পত্রানুসারে এই নীচের লিখিত কএক জনের পশ্চাদ্ভুক্ত কএক কৰ্ম্মে নিয়োগ নির্দিষ্ট হইল তাহাতে বিশেষতে রম্যর কটাক্ষ রমানাথেই হইল, আশুতোষ আপন নামের যোগাথানুসারে অমাত্যের কথায় আগু সম্মত হইয় একৰ্ম্মের প্রয়াসী হইয়াছিলেন কিন্তু কৰ্ম্ম না হওয়াতেও তাহার আশুতোষ হইল । নামের বিবরণ। ভ্রষ্টী অর্থাৎ বিশ্বস্ত —শ্ৰীযুত কম্পটন সাহেব ও শ্ৰীযুত ডিকিন সাহেব এবং শ্ৰীযুত রাজা নৃসিংহচন্দ্র রায় । ডাইরেকটর অর্থাৎ অধ্যক্ষ —শ্ৰীযুত জান পামর, মেং গার্ডন, মেং স্মীত, মেং বাইড, মেং ব্রেকন, মেং কলেন, মেং স্ট্রীতসন, মেং বুদ্ধস, মেং ডোগেল, মেং মলর, মেং এপ ক্যার, মেং সটন, বাবু রাধামাধব বন্দ্যোপাধ্যায়, বাবু হরিমোহন ঠাকুর, বাবু রাজচন্দ্র দাস । সেক্রেটরী অর্থাৎ সম্পাদক —শ্ৰীযুত হরি সাহেব । ত্রেজুরার অর্থাৎ খাজাঞ্চি —শ্ৰীযুত বাবু রমানাথ ঠাকুর । পরন্তু গত বৃহস্পতিবারে পুনৰ্ব্বার ঐ পূৰ্ব্বোক্ত অধ্যক্ষগণের এক সভা হইয়া কোষাধ্যক্ষের মাসিক ৫ • • তস্ক বেতন নিরূপণ হইয়াছে এবং তৎকৰ্ম্মের নিমিত্তে ৪ • • • • • চারিলক্ষ তস্কার বোধ দিতে হইবেক তাহার অৰ্দ্ধেক কোম্পানির কাগজে অথবা ঐ ব্যাঙ্কের অংশে এবং অপরাদ্ধের জন্য কোন ধনাঢ্য ব্যক্তিকে প্রতিভূ দেওনের কল্প স্থির হইয়াছে। অপর শ্রত যে ঐযুত হরি সাহেবের সেক্রেটরীক স্বীকারে বিকার জন্মিয়াছে এ প্রযুক্ত শ্ৰীযুত কারসাহেব ও শ্ৰীযুত গাডার্ড সাহেব তৎপদাভিষিক্ত হওনে উদযুক্ত আছেন, পুনশ্চ ঐ রূপ সভায় অংশিরদের সন্মতির দ্বারা নিযুক্ত হইলে সমাচার প্রচার করা যাইবেক । ফলিতাৰ্থ এ প্রকার সভা করিয়া উভয় পক্ষীয় লোক সকলের বোট অর্থাৎ সম্মতিপত্র লইয়া সেই পত্রের সংখ্যার আধিক্য দ্বারা কৰ্ম্মার্থিকে কোন কৰ্ম্মে নিয়োগ করণের প্রথা পূৰ্ব্বে কস্মিনকালে এ প্রদেশে ছিলন। অতএব অম্মদেশে এই এক নূতন স্বষ্টির দৃষ্টি হইল । ( ৪ জুলাই ১৮২৯। ২২ আষাঢ় ১২৩৬ ) জেনরল ব্যাঙ্ক ॥—গত ৩ জুন তারিখে এই ব্যাঙ্কের শেষ সভা পূৰ্ব্বোক্ত এক্সচেঞ্জঘরে