পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৪৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


N3:S8 সংবাদ পত্রে মেনকালেৰ কথা করণার্থে বৈঠক করিয়াছেন এই ক্ষণে দৌরাত্ম্যের বৃত্তাস্ত জ্ঞাত হইয়া নিতান্ত রূপে তল্লিরাস বিধানে ও পুলীসের ধারার স্থধারা করণে যথা সম্ভব অভিনিবেশ করিবেন এবং প্রজালোকের ধন প্রাণের রক্ষা ও আগন্তুক উৎপাতাদি শাস্ত্যর্থ পুলীসের আইন সকলেরো পরিবর্তনে প্রয়াস পাইবেন । এবং ঐ কমিটী সাহেবলোকের প্রতি ক্ষমতা অপিত হইয়াছে যে প্রজালোকের নিবেদন শ্রবণ করেন ও তাহারদিগের আগামি দুরবস্থার দূরীকরণে উপযুক্ত বিধান করেন। অতএব প্রজাবর্গের মধ্যে র্যাহারা দুরাত্মাদিগের দৌরাত্ম্যের কোন বিবরণ প্রচার করণে কিম্বা কোন উত্তম পরামর্শ দানে ইচ্ছুক হয়েন যদ্বারা প্রজালোকের সুখোসিতত্ব ও রাজার ন্যায়ের মহত্ব সন্তবে তাহ ঐ সাহেবলোকের নিকটে নিবেদন করিবেন । যে সকল বিতথা উপস্থিত ছিল তাহার মুখ্য কারণ পুলীসের এক স্থানে স্থাপনা এবং পুলীসের বহুতর . আইন এ প্রকার যে তস্থার প্রজালোক ক্লেশের ভাজন অতএব কমিটী সাহেবলোক এক পুলীসকে তিন স্থানে বিভাগ করিবেন আর যে কোন আইনের ব্যবস্থায় প্রজালোকের দুরবস্থা জন্মায় তাহা এক কালীন করিবেন তদ্বিষয়ে ইহার পরে ষে বৃত্তাস্ত প্রকাশ পাইবেক তাহা অপ্রকাশ থাকিবেক না । ( ৭ নবেম্বর ১৮২৯ । ২৩ কাৰ্ত্তিক ১২৩৬ ) পুলিসের কমিটী ॥—সম্প্রতি পুলিসের কমিটীর বৈঠক নিয়মিত মতে প্রতি সপ্তাহে তিনবার হইয়া থাকে কিন্তু এসভা যে অভিপ্রায়ে হুষ্ট হইয়াছে তাহার কোন কাৰ্য্য এপর্য্যস্ত দৃষ্ট হইতেছে না, দুই জন মাজিস্ত্রেট ঐ সভায় নিযুক্ত আছেন ফলিতাৰ্থ কলিকাতার পুলিসের বিষয়ে যে মানা প্রকার দোষোল্লাস সমাচার পত্রে প্রকাশ হইয়াছিল তদ্বিষয়ক কোন বিশেষ বৃত্তান্ত অদ্যাপি ব্যক্ত হইল না । ইহার কারণ কি কিছুই বোধ হয়না কিয়ংকাল হইল মাজিস্ত্রেটেরদিগের অমনোযোগ ও পুলিসের চৌকিদারেরদিগের দৌরাত্ম্য বিষয়ক অপবাদে সম্বাদপত্র পরিপূর্ণ হইয়াছিল এক্ষণে সকলের দরখাস্ত শুনিবার জন্ম এবং সমুদায় দুঃখ নিবারণ কারণ যখন কমিটী বসিল তখন সকলেই নিঃশব্দ হইয়া রহিলেন এক জনও জনপদের হিতার্থে এমত সাহসিক দেখা যায় না যে পূৰ্ব্বে সমাচারপত্রে যেসকল বিশেষ বিঘ্ন ঘটিত সম্বাদের আন্দোলন হইয়াছিল তাহার কোন প্রসঙ্গ করেন। - এই কমিটীতে আসিতে কাহারো ভয়ের বিষয় নাই কমিটীর সম্পাদক সকলে কাহাকেও ভয় দেখাইবেন না যদি কেহ এমত সন্দেহ করেন সে মিথ্যা কারণ র্তাহারা গবরণমেণ্টের অতি কোমল স্বভাব ও বিচার প্রভাবেই নিযুক্ত হইয়াছেন। অতএব আমরা বিশ্বাস করি যে তাহারদিগের বিবেচনার যোগ্য কোন বিষয়ের প্রস্তাব শুনিতে তাহারা নিতাস্ত বাঞ্ছিত আছেন । এমতে পুলিসের নিয়মের বিরুদ্ধে যে সকল ব্যক্তির অভিযোগ করণের কোন যথার্থ কারণ থাকে তাহার উপায়ের চেষ্টা যদি তাহারা এই বর্তমান সুযোগ পাইয়া না করেন তবে স্বতরাং তাহারা লোকোপকারের জগু গবরণমেণ্টের মনোযোগ নাই এ অপবাদ আর করিতে