পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৪৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$°● সন হবাদ পত্রে মেকানের কথা _ প্রথমতঃ তিনি বঙ্গভাষাতে এক অভিধান ও জ্যোতিঃ শাস্ত্রের একখণ্ড প্রকাশ করেন, এবং তাহী বিক্রয় দ্বারা কিঞ্চিৎ ধন সংগ্রহ পূৰ্ব্বক পরিবারের বাসের জন্য শিমুলিয়াস্থ ভেদুয়া পুষ্করিণীর উত্তরে এক বাটী ক্রয় করেন। পরন্তু তিনি রাজার নিকটে ক্রমশঃ অতিশয় প্রতিপন্ন হইয় তাহার বিশেষ আমুকুল্য দ্বারা হেহুয়া পুষ্করিণীর দক্ষিণে এক চতুষ্পাঠী সংস্থাপন পূর্বক কয়েক জন ছাত্রকে বেদান্ত শাস্ত্র অধ্যাপনা করিতে লাগিলেন । এষ্টরূপে তাহার শাস্ত্র জ্ঞান এপ্রকার উজ্জ্বল হইল, ষে সাকার উপাসকদিগের সহিত রাজার যে সকল শাস্ত্রীয় বিচার উপস্থিত হইয়াছিল, তাহাতে তিনিই প্রধান সহযোগী ছিলেন— রাজা তাহার পরামর্শ ব্যতীত কোন বিষযের সিদ্ধান্ত প্রকাশ করিতেন না । এবশ্বপ্রকার ধৰ্ম্ম চর্চা জন্য তিনি ক্রমশঃ অত্যস্ত মান্য ও বিখ্যাত হইয়া উঠিলেন । তদনন্তর স্ত্রীযুক্ত রাজা রামমোহন রায়ের বিশেষ যত্ন দ্বারা মাণিকতলাতে ব্রহ্মোপাসন জন্য ক্ষুদ্র আকারে আত্মীয় সভা নাম্নী এক সভা সংস্থাপিত হয়, তাছাতে বিদ্যাবাগীশ মহাশয় ব্রহ্ম জ্ঞান বিষয়ক ব্যাখ্যান করিতেন । পরে যখন ১৭৫১ শকের ১১ মাঘ দিবসে ব্রাহ্মসমাজ ষোড়াসাকোস্থ বর্তমান গৃহে স্থাপিত হইল, তখন তিনি তাঙ্গার এক জন অধ্যক্ষ হইলেন, এবং তত্ত্ববিদ্যা বিষয়ক ব্যাখ্যান দ্বার স্বদেশস্থ লোকদিগকে ব্রহ্মোপাসনার উপদেশ প্রদান করিতে নিযুক্ত হইলেন । ইতিমধ্যে কলিকাতার সংস্কৃত কলেজে স্মৃতি শাস্ত্রাধ্যাপকের পদ শূন্ত হইলে তিনি তাহ প্রাপ্তির নিমিত্তে প্রার্থনা করিয়াছিলেন, এবং অন্য যে যে পণ্ডিত তজ্জন্য প্রার্থি হয়েন, তন্মধ্যে তিনিই পরীক্ষা দ্বারা শ্রেষ্ঠরূপে উত্তীর্ণ হইয়। তৎপদে অভিষিক্ত হইয়াছিলেন ; এবং তদবধি প্রায় দশ বৎসর তৎকর্মে নিযুক্ত থাকিয়া বহু ছাত্রকে স্মৃতিশাস্ত্রে সুশিক্ষিত করিয়াছিলেন। পরস্তু রাজ রামমোহন রায়ের সহিত কোন ইংরাজের অপ্রণয় থাকাতে তিনি এক ব্যবস্থা উপলক্ষে রাজার সহযোগি বিদ্যাবাগীশ মহাশয়ের প্রতি অনর্থক অপবাদ প্রদান করিয়া তাহাকে কৰ্ম্মচু্যত করাষ্টলেন । কিন্তু বিদ্যাবাগীশ মহাশয় আপনাকে সম্পূর্ণ নির্দোযি জানিয়া সেই ব্যবস্থা পত্রে অন্য অন্য মহোপাধ্যায় পণ্ডিতদিগের নাম স্বাক্ষরিত করাইয়া তাহা ইংলণ্ড দেশস্থ কোর্ট অব ডিরেক্টস নামক বিচারালয়ে প্রেরণ পূৰ্ব্বক বিচার প্রার্থনা করিলেন । তত্রস্থ ন্যায়বান অধ্যক্ষেরা তাহাকে তদ্বিষয়ে নিরপরাধ করিলেন, এবং জাহাকে তৎপদে পুনৰ্ব্বার নিযুক্ত করণার্থ অত্রস্থ রাজকৰ্ম্মচারিদিগের প্রতি অনুমতি দিলেন ।* বিদ্যাবাগীশ মহাশয় কোট অব ডিরেক্টস’ হইতে নিস্কৃতি পত্র প্রাপ্ত হইয়। অত্রস্থ রাজকৰ্ম্মচারীদিগের নিকটে উপস্থিত করিলেন, কিন্তু তৎকালে সে কৰ্ম্মে অন্য লোক নিযুক্ত থাকাতে র্তাহার। তাছাকে সে পদে অভিষিক্ত করিতে না পারিয়া আশ্বাস করিলেন যে তাহারদিগের অধীনে তাঙ্গার উপযুক্ত প্রথম ষে পদ শূন্ম হইবে তাহাতেই নিযুক্ত করিবেন । ফলতঃ বিদ্যাবাগীশ মহাশয় শাস্ত্রালোচনা জঙ্ক এবং ব্রাহ্মসমাজের ব্যাখ্যাতৃত্ব কৰ্ম্ম সম্পাদন জন্য অন্যত্র গমনে অসম্মত হইয়। এই নগরস্থ সংস্কৃত কলেজের সম্পাদকীয় কৰ্ম্ম গ্রহণ করিলেন । বিদ্যাবাগীশ মহাশয় যদিও তঁাহার তাবৎ জীবন পর্য্যস্ত সাধারণ রূপে ব্ৰহ্মজ্ঞান প্রচারের জন্ত যত্নশীল ছিলেন, কিন্তু তাহার চিত্তে ইহা সৰ্ব্বদা জাগ্রত ছিল, যে বিধিবৎ প্রতিজ্ঞার সহিত ধৰ্ম্মের আশ্রয় গ্ৰহণ না করিলে সে ধৰ্ম্মের স্থৈৰ্য্য হইতে পারে না, এবং তদনুসারে পূর্বে একবার রাজ রামমোহন । রায়ের সহযোগী হইয়। এই রূপ বিধিবৎ ব্রহ্মোপাসনা লোকদিগকে উপদেশ করিবার জন্য উদ্যোগ করিয়াছিলেন ; কিন্তু তৎকালে অজ্ঞানের প্রাবল্য ও দ্বেষের আধিক্য প্রযুক্ত কেহ তদ্বিযয়ে সাহসী হইলেন না । সম্প্রতি যখন জ্ঞান বলে লোকের মন সত্য ধৰ্ম্ম গ্রহণের উপযুক্ত হইতেছে, তখন তিনি তাহার মানস সফল হইবুার সম্ভাবনা দেখিয়া আচাৰ্য্য রূপে বেদান্ত শাস্ত্রের সারার্থায়সারে বিধি পূর্বক এই ব্রাহ্মধৰ্ম্ম এদেশে প্রচার করিবার জন্য ১৭৬৫ শকের ৭ পৌষ বৃহস্পতিবার দিবা জুই

  • রামমোহন রায়ের মৃত্যুর অনেক পরে বিদ্যাবাগীশ মহাশয় সংস্কৃত কলেজ হইতে কৰ্ম্মচুত হইয়াছিলেন । তাহার পদত্যাগ-সংক্রাপ্ত কাগজপত্র ভারত-গধৰ্ম্মেন্টের দপ্তরে রক্ষিত আছে । See Public Dept. Procdgs. 5 Aug. 1840, Nos. 17-18, 20; also Pub. Dept. Procdgs. 19 Aug. 1840.]