পাতা:সংস্কৃত সাহিত্যের কথা - নিত্যানন্দ বিনোদ গোস্বামী.pdf/২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

কাব্য ও নাটক প্রভূতি খ্রীস্ট প্রথম শতক পর্যস্ত যেসব কবিতা পাওয়া যায় সেগুলি ধৰ্ম বা আধ্যাত্মিক সম্বন্ধে লেখা । কিন্তু মনে হয় রসস্থষ্টির উদ্দেশ্রোও সেকালে অনেক কবিতা লেখা হত । সেগুলি লুপ্ত। অনেকের মতে নল দময়ন্তীর উপাখ্যান নাকি প্রাচীনতম । ংস্কৃত কাব্যের মধ্যে যা পাওয়া যায় তার মধ্যে সবচেয়ে প্রাচীনতম হচ্ছে অশ্বঘোষের বুদ্ধচরিত আর সৌন্দরনন্দ । মধ্যএশিয়াতে একটা মঠের ধ্বংসাবশেষ খুঁড়ে অনেক বইপত্র পাওয়া গেছে তার মধ্যে অশ্বঘোষের এক খান নাটকের কতক অংশ মিলেছে। এতে মনে হয় অশ্বঘোষ আরো অনেক বই লিখেছিলেন। অশ্বঘোষের লেখা অতি চমৎকার। উক্ত সময়ের কাছাকাছি কেবল রসস্থষ্টির উদ্দেশ্যেই কবিতা লেখা আরম্ভ হয় । কিন্তু একথা আনুমানিকও হতে পারে কেননা তার আগেকার কোনো বই পাওয়া যায়নি । আর যায়নি বলেই যে ছিল না একথা মানতে অনেকে নারাজ । কালিদাস কাব্যনাটক লেখকদের মধ্যে সকলের সেরা । অশ্বঘোষ কালিদাসের চেয়ে প্রাচীন। পরে মাঘ ভারবি শ্ৰীহৰ্ষ প্রভৃতি কবির কাব্য লিখে এই দিকটা সমৃদ্ধ করে তোলেন। শত শত কবিদের প্রবন্ধ কাব্য উদ্ভট কবিতায় রসসাহিত্য অসামান্ত হয়ে ওঠে । কান আর মনের ওপর পষ্ঠের প্রভাব তাড়াতাড়ি পড়ে বলে কাব্যগুলি প্রায় সবই পদ্যে লেখা । গদ্যকাব্যও সঙ্গে সঙ্গে লেখা চলছিল। সেই গদ্য এমনভাবে সাজানো যে তার তুলনা অন্ত ভাষায় আছে কিনা জানি না। স্ববন্ধুর বাসবদত্ত বাণভট্টের কাদম্বরী, দণ্ডীর দশকুমার চরিত প্রভৃতি গন্তকাব্যের মধ্যে কাদম্বরীই অত্যুৎকৃষ্ট। পষ্ঠে আর গন্তে মিলিয়ে লেখাকে বলে চম্পূ। নল চম্পূ রামায়ণ চম্পূ ভারত চম্পূ প্রভৃতি খানকয়েক উৎকৃষ্ট চম্পূকাব্য আছে। আবার গল্পবলার উদ্বেপ্তে গল্পপদ্য মিশিয়ে ছোটো ছোটো আর একরকম লেখা আছে পঞ্চতন্ত্র, তন্ত্ৰাখ্যায়িকা,