পাতা:সংস্কৃত সাহিত্যের কথা - নিত্যানন্দ বিনোদ গোস্বামী.pdf/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

ছোটো ছোটো নাটক আর দর্শন প্রভৃতির টাকাটপ্পনী ২৫ চলতে লাগলেন। তার ফলে সবই হয়ে গেল একঘেয়ে আর নূতনতাহীন । এইসব কাব্য সমালোচনা যে সময় চরম উৎকর্ষ লাভ করেছিল ঠিক সেই সময়ই কবিতারও অধঃপতন আরম্ভ হতে লাগল। এই অলংকার শাস্ত্রেরই একটি শাখা রসশাস্ত্র। . স্ত্রীপুরুষের মনোবৃত্তি চাল চলন নিয়ে এর গঠন । শিংগভূপালের রসার্ণবস্তুধাকর, ভান্থদত্তের রসমঞ্জরী নামকরা বই । এই রসশাস্ত্র সবচেয়ে গৌরব লাভ করেছে গৌড়ীয় বৈষ্ণবগণের হাতে পড়ে । রূপগোস্বামীর ভক্তিরসামৃতসিন্ধু ও উজ্জ্বলনীলমণি রসশাস্ত্রের প্রতিদ্বন্দ্বিহীন পুস্তক । শ্রীজীব গোস্বামী ভক্তি ও প্রীতি সন্দর্তে রসের আলোচনা দার্শনিক দৃষ্টিতে করে গেছেন। শ্ৰীজীব হলেন রূপগোস্বামীর ভাইপো । অদ্বৈত জন্ধ সিদ্ধিকার বিখ্যাত আচার্য মধুসুদন সরস্বতীও ভক্তি রসায়নে রস সম্বন্ধে দার্শনিক ভাবে আলোচনা করেছেন। ছোটো ছোটো কাব্য আর দর্শন প্রভৃতির টীকাটপ্পনী ( ৮০০ খ্রীস্টাব্দ থেকে ১৪শ পর্যন্ত ) কাব্যের অবনতির সময়েও ভালো কবিতা লেখা চলছিল। তার অধিকাংশতেই কৃত্রিমতা আর সভারঞ্জকতাতে ভরা। এই সময় চরিত্রমূলক ও ঐতিহাসিক বই কিছু লেখা হয়। জৈন আচার্যদের ঐতিহাসিক প্রবন্ধগুলি বিশেষ সমাদৃত। কাশ্মীরের ইতিহাস রাজতরঙ্গিনী বিখ্যাত গ্রন্থ। ধর্মশাস্ত্রের ওপর টাকা লেখা এই যুগের প্রধান কাজ। কোনো কোনো টীকা আবার নিজেই যেন আলাদা বই । কলুকভট্ট, মেধাতিথি, আর গোবিন রাজ মনুসংহিতার টীকাকার । আগের দুজন বাঙালি । অপরার্ক কর্ক, নারায়ণ সুবরাজ, অসহায়, রঙ্গনাথ, সায়ন প্রভৃতি নানা পণ্ডিত, ধর্মশাস্ত্রের টীকাকার । এই সব টীকা দেখলে এদের পাণ্ডিত্য আর বহুদৰ্শিতা অস্বীকার করবার