পাতা:সাহানামা.djvu/২২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Yపే8 সাহানাম - যুদ্ধে ৰাইৰ,তাহার মাত কহিল তুমি কখন যুদ্ধদেখনাই সে রণ পণ্ডিত ধরন্তু কোন প্রকারে প্রৰোধ নামাৰিয়া বাদসার নিকটে জাসিয়াকরি আমার মাতা কহেন রোস্তম রণ পণ্ডিত আমি কখন যুদ্ধ দেখি নাই,বাদমাহ শুনিয়া প্রধান ২যোদ্ধা গণকে আজ্ঞা করিলেন তোমরাইহাকে যুদ্ধের কৌশলসিক্ষ করাও দশজন প্রধান যোদ্ধা দিবারাত্র ছয়মাস পৰ্য্যন্ত যুদ্ধের কোসল সকল তাহাকে শিক্ষা করাইল, তাহার পর বরগুবাদ সাহ সর্মুখে আসিয়া কহিল আমি যুদ্ধের কোসল সকল জ্ঞাত হইয়াছি যদি আজ্ঞা করেণ তবে যে দসজন আমার শিক্ষা শুরু সেই দসজন কেই এক কালীন বন্ধনকরিয়া আপন কার সর্মখে আনি ইহা শুনিয়া তাহারা কহিল বরঞ্জু সত্য কহিতেছে ইরানে ও ভরানে ইহার সম যোদ্ধা বেহু নাই ইহাকে মনুস্য জ্ঞান হয় না কোন দৈত্যর সন্তান হইবে, যুদ্ধে ইহার শ্রম বোধ নাই । বাদসাহ তুষ্ট হইয়া অনেক অলঙ্কার বস্ত্র হস্তি ঘোটক প্রসাদ করিয়া আপনার তক্তর নিকটে একতক্তে বরকে বসাইলেনবরঙ্গুকহিল আরবিলম্ব করা কন্তব্য নহে আমাকে শীঘ্ৰ যুদ্ধে বিদায়কর। কয়েক দিবস পরে বার সহসু সৈন্য ও হোমান এব-বার মান প্রধান দুই সেনাপতিকে সঙ্গে দিয়া বরকে যুদ্ধ করিতে ইরানে পাঠাইলেন, আর কহিলেন অতি ত্বরায় তোমার দিগের - পশ্চাৎ আমি ও জাইতেছি। কয়খেছিরো ইহাশুনির কাহল জাফরাছিয়াৰ সে দিবস রোস্তমের সহিত যুদ্ধে পরাজয় হয় আর ইরানের সরদার দিগকে দেখিলে পলায়ন করে তবে কি সাহসে ইরানে আসিতেছে; পরে তুছ ওফরেবোর্জ এইদুই”