পাতা:সাহিত্যের পথে - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাস্তব লোকেরা কিছুই ঠিকমত করিতেছে না, সংসারে যেমন হওয়া উচিত ছিল তেমন হইতেছে না, সময খারাপ পড়িয়াছে— এই সমস্ত দুশ্চিন্তা প্রকাশ করিযা মানুষ দিব্য আরামে থাকে, তাহার আহারনিদ্রার কিছুমাত্র ব্যাঘাত হয না, এটা প্রাযই দেখিতে পাওযা যায। দুশ্চিন্তাআগুনটা শীতের আগুনের মতো উপাদেয, যদি সেটা পাশে থাকে কিন্তু নিজের গাযে না লাগে । অতএব, যদি এমন কথা কেহ বলিত যে, আজকাল বাংলাদেশে কবিরা যে সাহিত্যের স্বষ্টি করিতেছে তাহাতে বাস্তবতা নাই, তাহা জনসাধারণের উপযোগী নহে, তাহাতে লোকশিক্ষার কাজ চলিবে না, তবে খুব সম্ভব আমিও দেশের অবস্থা সম্বন্ধে উদ্‌বেগ প্রকাশ করিযী বলিতাম, কথাটা ঠিক বটে ; এবং নিজেকে এই দলের বাহিরে ফেলিতাম। কিন্তু একেবারে আমারই নাম ধরিযা এই কথাগুলি প্রযোগ করিলে অন্তের তাহাতে যতই আমোদ হোক, আমি সে আমোদে খোলা মনে যে। গ দিতে পারি না । তবে কি না, বাসরঘরে বর এবং পাঠকসভায লেখকের প্রায একই দশা। কর্ণমূলে অনেক কঠিন কৌতুক উভযকে নিঃশব্দে সহ করিতে হয। সহ যে করে তাহার কারণ এই, একটা জাযগায তাহাদের জিত আছে। যে যতই উৎপীড়ন করুক, যে বর তাহার কনেটিকে কেহ হরণ করিবে না ; এবং যে লেখক তাহার লেখাটা তে রহিলই । অতএব নিজের সম্বন্ধে কিছু বলিব না। কিন্তু এই অবকাশে সাধারণভাবে সাহিত্য সম্বন্ধে কিছু বলা যাইতে পারে। তাহা নিতান্ত অপ্রাসঙ্গিক হইবে না। কেননা যদিচ প্রথম নম্বরেই আমার লেখাটাকেই } ($