পাতা:সাহিত্য-সাধক-চরিতমালা প্রথম খণ্ড.pdf/৩৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


彎 ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত কাব্য-সাহিত্যে পুরাতন ধারার তিনি শেষ কবি এবং মূতন ধারার তিনি উদ্বোস্কা । এক দিকে তিনি হরু ঠাকুর, রাম বস্থ, নিধুবাবু ( রামনিধি গুপ্ত ), গোঞ্জলা গুই, নিতাই বৈরাগী, রাস্ক-নৃসিংহ প্রভৃতি কবি-কুলের শেষ ও সক্ষম প্রতিনিধি এবং অন্ত দিকে দ্বারকানাথ, বঙ্কিমচন্দ্র, দীনবন্ধু, রঙ্গলাল ও মনোমোহনের ( বা ) গুরু ও শিক্ষাদাতা তিনিই । নূতন ও পুরাতনের সংঘর্ষে যেখানে পথ-বিপৰ্য্যয় ঘটিয়াছে, ঠিক সেইখানেই তিনি আপনাকে মাইলস্টোনের মত মুক্তিকাগর্ভে প্রোথিত বাথিয়া বিরাজ করিতেছেন ; হয়ত কালের প্রবাহে ধূলিজঞ্জালে সে দিনের সুস্পষ্ট পরিচয়-চিহ্নটি ঢাকা পড়িয়াছে । ইহার মধ্যে পরবত্তা যুগের বাঙালীদের অকৃতজ্ঞতা প্রকাশ পাইলেও সবটাই তাহদের অপরাধু নহে । মহাকালের উদ্ধে সমস্ত ঘাত-প্রতিঘাতকে অবজ্ঞা করিয়া যে-প্রতিভা আপনাকে সমুন্নত রাখিতে পারে, ঈশ্বরচন্দ্র ঠিক সেই জাতীয় প্রতিভাবান ছিলেন না । দীনবন্ধুর সহিত র্তাহার তুলনা করিতে গিয়া স্বযং বঙ্কিমচন্দ্র বলিয়াছেন কবিত্ব সম্বন্ধে গুরুণ অপেক্ষ শিযাকে উচ্চ আসন দিতে হইবে , ইহা গুরুরও আগেীয়বের কথা মঞ্চে আগেকার గాజగి ७ख खtएठौश् छिंल--4१(म एवf६ १६: छएिठौश्। ব্যঙ্গে আমাদিগের ভালবাসা জন্মিতেছে । আগেকার লোক কিছু মোট কাজ ভাল বাসিত ; সরুর উপর লোকেৰ আহুৱাগ । আগেকার রসিক, লাঠিয়ালের স্কায় মোট লাঠি লইয়া সজোরে শত্রুর মাথায়ু মারিতেন, মাথার খুলি ফাটিয়া যাইত । এখনকার রসিকের ডাক্তারের মত, সরু লানসেটখনি ৰাতির করিয়া, ক রিয়া ব্যথার স্থানে বসাইয়া দেন, কিছু জানিতে 3. k স্তু স্থায়ের গুপুত ক্ষতমুখে বাহির হইবা যায় --- গুপ্তের এ ক্ষমতা ছিল না। -- चूंकि : नीनबङ्ग *বলী।