পাতা:সাহিত্য পরিষৎ পত্রিকা (ষোড়শ ভাগ).pdf/৩১৬

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 Ve বঙ্গীয়-সাহিত্য-পরিষদের ইন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, শ্ৰীযুক্ত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, শ্ৰীযুক্ত নগেন্দ্রনাথ বসু, শ্ৰীযুক্ত অমৃতলাল বসু ও শ্ৰীযুক্ত দীনেশচন্দ্র সেনের সঙ্গে আলোচনা করিয়াছি; তাহারাও সঙ্কটের স্থলগুলি বিচার করিয়া প্ৰতিকার যে আবশ্যক, তাহা স্বীকার করিয়াছেন। আমি যাহা ভাল বুঝিয়াছি, তাহা আমার গ্রন্থে চালাইয়াছি, হোমিওপ্যাথির ছাত্রেরা তাহা পড়িতেছে এবং তাহা দ্বারা তাহদের এবং তাহদের শিক্ষকদিগের কাজ বেশ চলিয়া যাইতেছে। এক্ষণে আপনাদের নিকট সাহিত্য পরিষদের নিকট বাঙ্গালা সাহিত্যের বিচক্ষণ লেখকদিগের এ বিষয় উপস্থাপনের উদ্দেশ্য এই যে, BDuBBBDD BBDDBD BDB D DD DBB DBBB BDBDSDD DBDYD এবং কর্তব্য অবধারণ করুন। প্ৰতিকারের জন্য আমি যে নকল শব্দ লইয়াছি, ভাল বোধ হয় সেইগুলিই রাখুন নতুবা উপযুক্ত শব্দ-নিৰ্বাচন করিয়া দিন, আমিও তাহা গ্ৰহণ করিতে প্ৰস্তুত আছি। এ সম্বন্ধে একদিনে কাজ হুইবে না, এ সম্বন্ধে বিচার-বিতর্কের জন্য সময় আবশ্যক, আপনারা এ বিষয়ে DBDBBB DD BDDu DBD BBDBB DDS BD BDD BDBS তৎপরে উমেশচন্দ্ৰ বিদ্যারত্ন মহাশয় জানাইলেন যে র্তাহার প্রবন্ধ কিছু দীর্ঘ-পড়িতে সময় অধিক লাগিবে। সভাপতি মহাশয় এজন্য প্ৰস্তাব করিলেন যে উহা অন্য অধিবেশনে পাঠের জন্য নির্দিষ্ট করা হইবে। এই প্ৰস্তাবে বিদ্যারত্ন মহাশয় সন্মত হইলে, তাহার প্রবন্ধ পাঠ এ অধিবেশনে স্থগিত রহিল। 丐 তৎপরে শ্ৰীযুক্ত যোগেন্দ্ৰনাথ গুপ্ত মহাশয় তাহার “বিক্রমপুরে সৌর প্রভাব” প্ৰবন্ধ পাঠ করিলেন। এই প্ৰবন্ধ ১৩১৬ সালের ফাস্তুন মাসের ‘সুপ্ৰভাত’ পত্রিকায় প্ৰকাশিত হইয়াছে। যোগেন্দ্র বাবু প্ৰবন্ধে স্থূলতঃ দেখাইয়াছেন যে, যতদূর প্রমাণ পাওয়া যায় তাহাতে বৈদিক কাল হইতেই ভারতে সুৰ্যোপাসনা প্ৰচলিত হইয়াছিল । পুরাণবর্ণিত শাম্বোপাখ্যান হইতেও उांश्छे यू5िड श्व । कभoi: সুৰ্য্য-পূজা ও সুৰ্য্য-প্ৰতিমা বাঙ্গলা দেশেও छ्फूनि *८, c*८ পদ্মা, মেঘনার চর ও বিক্রমপুরের গ্রামে গ্রামেও যে এককালে অসংখ্য সুৰ্য্য-প্ৰতিমা মন্দিরে tBDBBDB gDDD DDBBBDS ggDD DL BDDD DuDD KDD DSS BB BB BBB DBBDS গ্রামে প্ৰাপ্ত এক সুৰ্য্য-প্ৰতিমার ফটোগ্রাফ দেখাইয়া বলেন এরূপ ক্ষুদ্র বৃহৎ বহু সুৰ্য্য-প্ৰতিমা এখনও গ্ৰাম্যদেবতারূপে নানা নামে বিক্রমপুরের নানা গ্রামে পুজিত হইতেছেন। অতঃপর তিনি বিক্রমপুরে সুৰ্য্যপূজার এখন কি অবস্থা, সুৰ্য্যব্রতের নিয়মাদি বিবৃত করিয়া এবং আব্দুসঙ্গিক বাঙ্গলার আরও দু এক স্থানের সুৰ্যপূজার কথা উল্লেখ করিয়া প্ৰবন্ধ শেষ করেন। সুৰ্যোপাসনায় যে রোগ মুক্ত হয়, শাম্ব যে কুষ্ঠ হইতে মুক্ত হইয়াছিলেন, রামায়ণে যে শত্রুবিধার্থ রামের আদিত্য-হৃদয় স্তব পাঠের ব্যবস্থা দেখা যায় এবং সুৰ্য্যবরে দ্রৌপদীর অক্ষয় অন্নপাত্ৰ লাভ হইয়াছিল, চিন্তাদেবী সুৰ্য্যবরে স্বরূপ লুকাইয়া কুরূপের আবরণে সতীত্ব রক্ষা করিতে পারিয়াছিলেন, যোগেন্দ্ৰ বাবুর প্রবন্ধে এ সকল কথাও আছে। O ডাক্তার চন্দ্ৰশেখর কালী সুৰ্য্যরশ্মি দ্বারা ব্ৰণপীড়া আরোগ্যের কথায় বলিলেন, এক্সরের KDB BDBDBSS LLL SSLtK BBDK DDD DEK BD SS