পাতা:সিক্ত সিঁথি দুরন্ত শ্রাবণ.pdf/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সুহ্মাতা-বে নিরেট রোদব দিয়ে ঝলসানো একটি দুপুবে তুমি কি এখানে এলে—চোখে স্মিত শান্তির প্রত্যাশ ; দিনের দহন তুমি ধুয়ে নিতে সাগর খুঁজেছো, দিতে তো পারিনি, নেই কুম্ভ-ভরণীয় কোন হৃদয়-সায়র। আমার হৃদয় ঘিরে তবু এক রোদ ঝিলমিল ( কপোতাক্ষ নয় কোনো ), শুস্কচোখ পক্ষিণীর হ্রদ এ-দুপুরে তবু আছে—আগাছায় ঘেরা তীর এক, অথবা, সে হ্রদ নয়, ঘেমে-ঘেমে ক্লান্তির সঞ্চয় । তবু তারি তীর ঘেঁষে মৃদু পায়ে তুমি তো এসেছ রেখে গেছ তারি বুকে একখানি ভরপুর স্নান,— তোমার এ-দান ক্লান্তির পন্বলে যেন স্মিত শুভ্ৰ পদ্মের করুণ, সমুদ্রের সেই মেয়ে এ-হৃদয়ে ক্ষণিক ঘুমালো । সে-কন্যা গিয়েছে ফিরে ঝরাপাতা মর্মরিত পথে সে কন্যার স্নান-সমাপন, যাবার সময় সেই নীল শাড়ি নিঙাড়ি-নিঙাডি ভাঙা ঘাটে রেখে গেছে অশ্রুনীল ব্যথার স্মৰণ ॥ ষোল