পাতা:সিতিমা.pdf/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৫
সিতিমা

সিতিমা (page 8 crop).jpg


 যে শত্রুরা উজ্জ্বলের আহবানে এই পথে এসেছে এবং সুযোগ

 মত উজ্জ্বলের সেনাদল তাদের সঙ্গে যোগ দেবে। তারা যুদ্ধে

 অগ্রসর হতে চায়না।

মহারাজ।  উজ্জ্বল সিংহকে উপস্থিত কর।

 [ দুর্জ্জয়ের নিষ্ক্রমণ।

 আমার নিজবাহু ভগ্ন দেখ্‌ছি, আমার নিজের হৃদয়কে বিদ্রোহী

 মনে হচ্চে। উজ্জ্বল বিদ্রোহী-একথা যে মনেই আনতে পারিনা!

 তার স্বর্গগতা ভগ্নীর দৃষ্টি তার চক্ষু দিয়ে আমার উপর প্রীতি

 বর্ষণ করতো; মনে হ’ত যেন তিনি তাঁর মুখের লাবণ্য, তাঁর

 সতীত্বের জ্যোতিঃ, তাঁর চরিত্রের মাধুর্য্য উজ্জ্বলের মুখে আর

 চরিত্রে ঢেলে রেখে গেছেন। সেই উজ্জ্বল যাকে পুত্রের মত

 স্নেহ করেছি, বন্ধুর মত বিশ্বাস করেছি, নিষ্পাপ বলে তার মৃতা

 সহোদরার প্রাপ্য শ্রদ্ধা দিয়েছি-

 [ শৃঙ্খলিত হস্ত উজ্জ্বল সিংহকে লইয়া সৈনিক পুরুষ দ্বয়ের প্রবেশ।

সৈনিক। মহারাজাধিরাজের অন্তঃপুরে রক্ষীগণ এঁকে দেখতে পেয়ে

 আমাদের খবর দেয়, আমরা শনিবার সন্ধ্যাবেলা একে সেখানে

 ধরি।

মহারাজ।  উজ্জ্বল সিংহ তুমি ধৃত শৃঙ্খলিত হয়ে এলে? কোন্‌ আকস্মিক

 বিপদ নিবারণ করতে তুমি সেনাদল পথে রেখে একলা গোপনে

 আমার অন্তঃপুরে প্রবেশ করেছিলে? [কিয়ৎক্ষণ উত্তরের প্রতীক্ষা

  করিয়া] চুপ করে রইলে কেন?

উজ্জ্বল।  [স্খলিত কণ্ঠে] মহারাজ-

 [ ওষ্ঠদংশন পূর্ব্বক কণ্ঠ স্থির করিবার চেষ্টা ]