পাতা:সিতিমা.pdf/৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৯
সিতিমা

চতুর্থ দৃশ্য।

বীরগ্রাম, প্রাচীন দুর্গের নিম্নতলে অন্ধকারাগার। বাহিরে একজন বৃদ্ধ ও একজন তরুণ সন্ন্যাসী ও প্রহরী।

তরুণ স।  এ দরজা কখন খুলবে ভাই?

প্রহরী।  দরজা যখন তখন খোলে না।

তরুণ স।  তাতো খুব জানি, তবু কখনো তো খোলে?

প্রহরী।  এই যেদিন রাজা সাহেবেব মনে পড়ে, ইচ্ছা যায়। ছ’দিনে ন’দিনে। একটা দিন ঠিক করা নেই।

বৃদ্ধ স।  খাবার দিতে যাও কোন রাস্তায়?

প্রহরী।  ঐ যে গোল ফোকর, আলো হাওয়া ঢুকবার পথ-এখান দিয়ে একটা রসি গলিয়ে দেওয়া যায়, রসিতে ছাতুর ঠোঙ্গা আর জলের কুঁজো বাঁধা থাকে।

তরুণ স।  সে লোকটি দেখ্‌তে কেমন ভাই?

প্রহরী।  আহা যখন এল খাসা দেখ্‌তে ছেল, কিন্তু এই পনের কুড়ি দিনে রোগা ফ্যাকাসে হয়ে গেছে।

তরুণ স।  আমি হলে কবে পালিয়ে যেতুম।

বৃদ্ধ স।  কি খেতে দাও?

প্রহরী।  একশরা ছাতু, একটু নুন এক কুঁজা জল।

তরুণ স।  ফলটল কিছু নয়?