পাতা:সিতিমা.pdf/৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩০
সিতিমা

প্রহরী।  হুঁ ফল দেবে, মেওয়া দেবে মেঠাই মণ্ডা পরমান্ন দেবে- তবে শ্বশুরবাড়ী না পাঠিয়ে অন্ধকার কয়েদখানায় পূরবে কেন?

তরুণ স।  ঠিক বলেছিস ভাই, এতো শ্বশুরবাড়ী নয়, এ হল অন্ধকারাগার। কিন্তু ভাই তোমার ঐ পথ দিয়ে আমার ঝুলিটা নামিয়ে দিতে হবে।

প্রহরী।  ওটাতে কি আছে ঠাকুর?

তরুণ স।  এই পুঁটলীতে আছে কাপড়, শীত করলে পারবে; আর এই যে কাগজখানা দেখছি। এতে একটা মন্ত্র লেখা আছে। ভয় পেলে মন্ত্র আওড়াবে।

প্রহরী।  ভয়তো খুবই পাবার কথা। ওর মধ্যে অনাহারে যারা মারা গেছে, লোকে বলে তাদের হাড়গুলো ওর ভেতরেই পড়ে আছে, আর তাদের ভূতগুলো ওইখানে মাঝে মাঝে এসে ভারি উৎপাত করে।

বৃদ্ধ স।  একটা বন্দী ওর মধ্যে মরেছিল?

প্রহরী। একটা? ঢের লোক ওর মধ্যে মরেছে। এ লোকটা যে জ্যান্ত বেরোবে তা’ কে জানে?

তরুণ স।  তবে তো আমার এই মন্তর তার খুব কাজে আসবে। কিন্তু পাঠাই কি করে?

প্রহরী।  কি করে পাঠাবে? ছাতু জল ছাড়া কোন কিছু পাঠাবার হুকুম নেই।

তরুণ স।  কেউ তো ভাই জানবে না?