পাতা:সিমার - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.pdf/১০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ধরতে পারে না । বেকুফ। ভ্যাগাবিন্ড । সাদিক একদিন গাছের প্রসঙ্গ শুনে হেসেই আকুল । খানিক চড়া গলায় হেসে হাসি নিভিয়ে ফেললেন, ওটাই ওঁর স্বভাব । তারপর বললেন-তবে শোনো--- তিন “তবে শোনো” বলা মানেই ধরতে হবে, উনি এবার খুব মজা করে গল্প শুরু করবেন। সবাই উৎসুক হয়ে উঠলাম, আমি চট করে একটা বুদ্ধি করলাম, বললাম-এক মিনিট । শিরিন-খালামাকেডেকে নিয়ে আসি । উনিও শুনবেন । তড়াক করে খাট ছেড়ে নেমে পাশের ঘরে এলাম । দেখলাম, শিরিন জানালা ধরে বাগানের দিকে নিম্পলক চেয়ে আছেন । ওইভাবে মাসিকে দেখলে আমার মন ভীষণ খারাপ হয়ে যায়। হাত ধরে টেনে জানালার পাল্লা ঠেলে দিলাম, চেয়ে দেখি, শিরিনের চোখে জল টলটল করছে। -4 कै, कौमछ ? --না। কিছু না । তুমি আমায় ছেড়ে দাও । আমি ও-ঘরে যাব না। ওই লোকটির রগুড়ে কথা সব সময় ভালো লাগে না । আমি কিছুক্ষণ চুপ করে থেকে বললাম-মনকে যত খারাপ রাখবে, মন তত খারাপ থাকবে । আমাদের মধ্যে মামাই একমাত্র রঙিন মানুষ । ওঁকে তোমার धनों द्वों कीं ? -না । একদম না । এখন আমাব একটাই রঙ পছন্দ । সিঁদুরি গাছ । --বেশ তো । মামা তো গাছের কথাই বলতে চাইছেন । কী হল, যাবে না ? শিরিন পায়ে-পায়ে এগিয়ে এসে এঘরে খাটের একপ্ৰান্তে বসলেন । শিরিনকে দেখে মামা বললেন সচকিত গলায়-ও ! আপনিও এসে পড়েছেন ? এবারে বুবুকে (মানে মাকে) ডেকে আনো, মিনু’। বোটানিক্যাল গার্ডেনের দুটি গাছের গল্প আমি শোনাব। একটি হল ফুল । নাম হল লিলি । দুই হচ্ছে একটি হতভাগ্য খেজুর । যাও ! BDODLBDSSLD DBOBBB DDD S S DL DDLS মামা বললেন-বেশ, তবে শুরু করি । কথা হল, গাছেরও প্ৰাণ আছে, বিজ্ঞানী প্রমাণ করেছেন । গাছ। অনুভূতিপ্রবণ প্রাণী । ওর হিংসা আছে। ভালোবাসা আছে। ঘূণা করে গাছ। গাছ আল্লাদিত হয়। শিবপুরে বোটানিক্যাল গার্ডেনে সেবার গেলাম । গাইড একটা ডোবার সামনে এনে বললে-ওই যে দেখছেন পদ্মপাতার মতন বিশাল পাতা, ওটা পদ্ম নয়। ঐ ফুলও পদ্মফুল নয়। yo