পাতা:সিরাজদ্দৌলা - অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়.pdf/২৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২৮০
সিরাজদ্দৌলা

 একে নিশাকাল, তাহাতে নিদারুণ শীত। সকলেই নিঃশব্দ নিঝুম। সেই নৈশ নীরবতা আলোড়ন করিয়া ইংরাজের কামান গুলি ভীম কলরবে গর্জ্জন করিয়া উঠিল! গুড়ুম-গুড়ুম— গুম্; গুড়ুম—গুড়ুম-গুম, গুড়ুম-গুড়ুম-গুম্;—ইংরাজের কামান ঘন ঘন ডাকিতে লাগিল, গুড়ুম-গুড়ুম-গুম্। সহসা সুপ্তোত্থিত হইয়া সিপাহীসেনা কামান গর্জ্জনের কারণ বুঝিতে পারিল না! তাহারা তুমুল কোলাহলে নবাব-শিবির আকুল করিয়া তুলিল; এবং যে যেখানে ছিল, হাতিয়ার বাঁধিয়া, মশাল জ্বালাইয়া, কামানের নিকটে দাঁড়াইতে লাগিল। তখন নবাব-শিবিরের কামানগুলিও প্রচণ্ড বিক্রমে অনলবর্ষণ করিতে ক্রটি করিল না!

 সিরাজদ্দৌল্লা গাত্রোথান করিলেন। প্রভাত হইলেও ভাল করিয়া দৃষ্টিসঞ্চালনের উপায় হইল না;—ঘন ঘনাকারে ধূমপুঞ্জ দিঙ্মণ্ডল আবরণ করিয়া ফেলিয়াছে, তাহার উপর কুজ্‌ঝটিকায় চারিদিক্‌ সমাচ্ছন্ন; নিকটে কি দূরে কোনদিকেই নয়নসঞ্চালনের সুবিধা নাই। কেবল থাকিয়া থাকিয়া উভয় পক্ষের কামানগুলি কড়্‌ কড়্‌ করিয়া উঠিতেছে; আর মধ্যে মধ্যে আহতের আর্ত্তনাদে চারিদিক আকুল করিয়া তুলিতেছে! সকলেই বুঝিল যে, লড়াই বাধিয়াছে;—কিন্তু সহসা লড়াই বাধিবার কারণ কি, সে কথা কেহই বুঝাইতে পারিল না।

 ৭টা বাজিয়া গেল। তথাপি সেই কুজ্‌ঝটিকা, তথাপি সেই ধূমপুঞ্জ, তথাপি সেই কামানগর্জ্জন। কে কোথায় ছিটাইয়া পড়িয়াছে;—শত্রু নিকটে কি দূরে, কিছুই বুঝা যাইতেছে না; কেবল শব্দ লক্ষ্য করিয়া মুসলমানেরা কামানে অগ্নিসংযোগ করিতেছে, আর প্রদীপ্ত লৌহপিণ্ডরাশি তীব্রতেজে ছুটিয়া বাহির হইতেছে। যখন দিবালোক প্রস্ফুটিত হইয়া উঠিল, তখন সকলেই সবিস্ময়ে চাহিয়া দেখিলেন যে, ক্লাইবের সমর-পিপাসা শান্ত