পাতা:সুকুমার রায় রচনাবলী-দ্বিতীয় খন্ড.djvu/৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রকম লোহার জিনিস সেখানে আনা নিষেধ, কঁাটাপেরেক পর্যন্ত আনিবার উপায় নাই । এইরকমের অসংখ্য নিয়ম নিষেধ মানিয়া তবে কারখানা চালাইতে হয় । ভগ্ন শরীরে এইরকম সাংঘাতিক জিনিসের কারবার করিয়া নিত্য বিপদের মধ্যে যাহার জীবন কাটিল, ১৮৯৬ খৃস্টাব্দে মৃত্যুকালে তাহার শেষ চিন্তা হইল এই ষে, জগতে শান্তি স্থাপনের জন্য, এবং জ্ঞান ও আনন্দের বিস্তারের জন্য উপায় করিতে হইবে। তাহারই ফলে, এই নোবেল প্রাইজ । কিন্তু কেবল এই দানই নোবেলের শ্রেষ্ঠ দান নয়। ডিনামাইট প্রভৃতি যে-সমস্ত রাসায়নিক অস্ত্র তিনি জগতকে দিয়া গেলেন, সেও বড়ো সামান্য দান নয়। যুদ্ধের কথা ছাড়িয়া দিলেও দেখা যায় যে, সভ্য মানুষের যে-সমস্ত বড়ো-বড়ো কীতি, তাহার অনেকগুলিই সহজ ও সম্ভব হইয়াছে কেবল নোবেলের ঐ অস্ত্রের গুণে । মাটি উড়াইয়া পাহাড় ফাটাইয়া পাথর সরাইয়া পথঘাট রেলপুল বসানো হইতেছে, খালকাটিয়া নদীর পাড় ভাঙিয়া জলের স্রোতকে নানাদিকে চালানো হইতেছে, সমুদের সঙ্গে সমুদ্র জুড়িয়া নুতন নুতন জলপথের সৃস্টি হইতেছে, খনি ব্যবসায়ী খনি খুঁড়িতে গিয়া পাঁচ মাসের কাজ পাঁচ মিনিটে সারিতেছে, সভ্য দেশের চাষা বিনা লাঙলে সামান্য পরিশ্রমে বড়ো-বড়ো জমি ফড়িয়া চষিয়া ফেলিতেছে । নেপোলিয়ান যখন ইটালি বিজয় করিতে চলিলেন তখন সকলে বলিয়াছিল, “কি অসম্ভব কথা ! এই দুরন্ত শীতে তুমি সৈন্য লইয়া আল্পস্ পাহাড় পার হইবে কিরূপে ?” নেপোলিয়ান বলিয়াছিলেন, “There shall be no Alps " "আল্পস পাহাড় থাকিবে না”—অর্থাৎ সে আমায় বাধা দিতে পারিবে না । নেপোলিয়ান আল্প সৃ পার হইয়া চলিয়া গেলেন। তাহার পর প্রায় শতবৎসর পরে যখন ফ্রান্স, ইটালি ও সুইজারল্যাণ্ডের মধ্যে আল্পস্ পাহাড় ভেদ করিয়া রেলপথ বসানো হইতেছিল, তখন নোবেলও বলিতে পারিতেন, “There shall be no Alps !” লক্ষ যুগের পাহাড়ের বাধন একটি রুগ্নদেহ দুর্বল মানুষের বুদ্ধির কাছে পরাস্ত হইয়া ঝরিয়া পড়িল । সন্দেশ–আশ্বিন, ১৩২৫ জোয়ান সে প্রায় পাঁচশো বছর আগেকার কথা । ফরাসি জাতির তখন বড়োই দুঃখের দিন । দেশের রাজা হলেন পাগল—আর অপদার্থ রাজপুত্র সারাদিন আমোদেই মত্ত । দেশের মধ্যে কোথাও শান্তি নেই, শঙ্খলা নেই–চারিদিকে কেবল দলাদলি আর যুদ্ধবিবাদ। ঘরের শত্র দেশের লোক, তার উপর বাইরের শত্রু ইংলণ্ডের রাজা। দেশসুদ্ধ সবাই দলাদলি নিয়ে ব্যস্ত, সেই সুযোগে ইংরাজরাজ দলবলসুদ্ধ ফ্রাসের মধ্যে ঢুকে একধার থেকে দেশটা দখল করতে আরম্ভ করেছেন । তাকে বাধা দিবার কেউ নাই । এমনই দেশের দুদিন । C. w७ , সুকুমার সময় রচনাবলী : ২