পাতা:সুকুমার রায় রচনাবলী-প্রথম খন্ড.djvu/১৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।


ইস্কুল

ছুটি

ঘুচবে জ্বালা পুঁথির পালা ভাবছি সারাক্ষণ---
পোড়া স্কুলের পড়ার পরে আর কি বসে মন?
দশটা থেকেই নষ্ট খেলা, ঘণ্টা হতেই শুরু
প্রাণটা করে 'পালাই পালাই’ মনটা উড়ু উড়ু---
পড়ার কথা খাতায় পাতায়, মাথায় নাহি ঢোকে !
মন চলে না, মুখ চলে যায় আবোল তাবোল বকে !
কানটা ঘোরে কোন মুলুকে হুঁশ থাকে না তার,
এ কান দিয়ে ঢুকলে কথা ও কান দিয়ে পার।
চোখ থাকে না আর কিছুতেই, কেবল দেখে ঘড়ি,
বোর্ডে আঁকা অঙ্ক ঠেকে আঁচড়কাটা খড়ি!
কল্পনাটা স্বপ্নে চড়ে ছুটছে মাঠে ঘাটে---
আর কি রে মন বাঁধন মানে? ফিরতে কি চায় পাঠে ?
পড়ার চাপে ছটফটিয়ে আর কি রে দিন চলে ?
ঝপ করে মন ঝাঁপ দিয়ে পড় ছটির বন্যাজলে ॥
                                                    
                                                     সন্দেশ-১৩২৫

দিনের হিসাব

ভোর না হতে পাখিরা জোটে, গানের চোটে ঘুমটি ছোটে---
চোখটি খোলো, গাত্র তোলো, আরে মোলো, সকাল হল।
হায় কি দশা, পড়তে বসা, অঙ্ক কষা, কলম ঘষা,
দশটা হলে হট্টগোলে দৌড়ে চলে বই বগলে।
স্কুলের পড়া, বিষম তাড়া, কানটি নাড়া, বেঞ্চে দাঁড়া,
মরে কি বাঁচে! সমুখে পাছে বেত্র নাচে নাকের কাছে ॥

খেলতে যে চায়, খেলবে কি ছাই, বৈকেলে হায়, সময় কি পায় ?
খেলাটি ক্রমে যেমনি জমে দখিনে বামে সন্ধ্যা নামে,
ভাঙলো মেলা, সাধের খেলা-- আবার ঠেলা সন্ধ্যাবেলা---
মুখটি হাঁড়ি, তাড়াতাড়ি দিচ্ছে পাড়ি যে যার বাড়ি।
ঘুমের ঝোঁকে ঝাপসা চোখে ক্ষীণ আলোকে অঙ্ক টোকে;
ছটি পাবার সুযোেগ আবার আয় রবিবার, হপ্তা কাবার ॥

                                                                       সন্দেশ-১৩২১

সু. স. র.---২২
১৬৯