পাতা:সুকুমার রায় রচনাবলী-প্রথম খন্ড.djvu/২৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কেবল। আ মোলো যা ! এরা আমায় গাইতে দেবে না দেখছি, আমার ভালো-ভালো গানগুলো— কোটা ও ঘাঁটরামের প্রবেশ ঘটিরাম। আমরা গান শনতে এলাম। কেল্টা । কই রে, লোকজন সব কই ? গাইবে কে? আপনি বুঝি ? কেবল। হ্যাঁ হ্যাঁ, তা এরা যখন নেহাত পেড়াপীড়ি কচ্ছেন তখন না গাইলে সেটা ভয়ঙ্কর খারাপ দেখাবে। কেবলচাঁদ গান গন করিতে-করিতে সহসা সপ্তমে চিৎকার খে‘ট্রাম। রক্ষে কর দাদা, এ অত্যাচার কেন ? দলিরাম। মশাই, এটা ডেফ অ্যান্ড ডাম্ব' ইস্কুল নয়—আমাদের কানগুলো বেশ তাজা আছে । কেবল। আজ্ঞে, সরটা ঠিক আন্দাজ পাই নি—একট চড়ে গিয়েছিল—না ? দলিরাম। একট বলে একট । খে ট্রাম। রীতিমত তেড়ে এসেছিল। কেবল। আচ্ছা, একটা নামিয়ে ধরি— কেবলচাঁদের গান আহা, পড়িয়া কালের ফেরে মোরা কি হন রে ? কোথায় ভীম কোথা দোণ । কোথা কণী ভীমাজন কোথায় গেলেন যাজ্ঞবল্ক্য কোথায়-বা সে মন রে ? মাটির সঙ্গে মিশছে সবি কোঁচোর মতো খাচ্ছে খাবি। কেবল আপিস খাটি কচ্ছে মাটি নধরপলেট তন রে— ব্রাহ্মণের সে তেজ নাই হ্যাঁ হ্যাঁ ব্ৰাহ্মণের সে— সা.স.র—২৯ কেবলচাঁদের মাথা চুলকানো দলিরাম । শিঙ নাই আর লেজ নাই— কেবল। হ্যাঁ হ্যাঁ— কেবলচাঁদের গান ব্ৰাহ্মণের সে তেজ নাই খাদ্যাখাদ্য ভেদ নাই মনের দুঃখ কারে বলি মোরা কি হন রে-— আহা পড়িয়া কালের ফেরে মোরা কি হন রে। খে"ট্রাম। দাঁড়ান একটা সামলে নি—অতো করণে রস করবেন না। খোঁট ও দলি কুন্দনোমখে। কেটা ও ঘটিবামের উচ্চহাস্য খে"ট্রাম। তবে রে হাসছিস কেন ? ঘটিরাম । বাঃ! হাসি পেলে হাসব না ? দলিরাম। হাসি পাবে কেন ? এখানে হাসবার কি হল ? খোটরাম। ছ্যাবলামি পেয়েছিস ? কথা নেই বাতা নেই—হ্যাঃ-হ্যাঃ ! ঘটিরাম। কি রে কোটা, হাসি পেলে হাসব না ? কেটা। এই রে, পণ্ডিতমশাই আসছে— ঘটিরাম ও কৈটা। এই রেঃ, এই রেঃ, এই রেঃ, পন্ডিতমশাই আসছে—মাটিং চকার—তোর র্যাপারটা দে তো। ছোকরা ! তোরা ঘটিরাম ও কেটার র্যাপার মড়ি হইয়া উপবেশন। পণ্ডিতের প্রবেশ পন্ডিত। ভালো, ভালো! তোমরা মধ্যেমধ্যে বিশ্রাম নিতে পার না ? নিত্যিনিত্যি জমিদারমশাইকে বিরক্ত করাটা কি ভালো দেখায় ?—ইকী! ক্যাবলাটা এখানে এয়েছে কি করতে ? (দলিরাম ও খোঁটরামের প্রতি) আমোলা যা ! তোমাদের যত রাজ্যের ইয়ার-বকশী সব বুঝি জোটাচ্ছ একে-একে ? २२6