পাতা:স্বর্ণ-শৃঙ্খল নাটক.pdf/২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সরল ; স্বর্ণ শৃঙ্খল নাটক । * > মের ন্যায় অলীক মাত্র । পঞ্চ আখণ্ডল আমার নাথ ও আজ্ঞাকুবৰ্ত্তী, বৈকুণ্ঠনাথ আমার সখা, দেবাসুর-যক্ষ-রক্ষকিন্নর-নরগণ-পূজিত মহারাজা যুধিষ্ঠিরের পট্টমহিষী আমি, তথাপি স্ত্রীবুদ্ধি-প্রযুক্ত সপত্নী-ঈর্ষাতে আমার হৃদয় দগ্ধ হইতেছে । তোমার এরূপ ঈর্ষা অতি অসঙ্গত, বল দেখি, তোমার স্তায স্বাধীনভৰ্ত্তক কে আছে ? হিড়ম্বা ঠাকুরাণী তে আপন পুলগৃহে বাস করেন, স্বামীর সহ— দ্রৌপদী । না না, হিড়ম্বার প্রতি আমার ঈর্ষ বা দ্বেষের লেশমাত্রও সরলা । দ্রৌপদী । সরলা । নাই। বরঞ্চ তাহার আমার প্রতি সপত্নীভাবে ঈর্ষা করা সম্ভব, কারণ, আমার বিবাহের পূৰ্ব্বে মধ্যম পাগুধের সহিত তাহার পরিণয় হয় । তবে আর কে ? কৃষ্ণভগ্নী সুভদ্রা ? সখি, আর কেন আমাকে দগ্ধ কর ? সুভদাহরণকালে পার্থের সহিত অকুল-কূলস্থ বালুকাপেক্ষাও অসংখ্য যদুবংশের যুদ্ধে সুভদ্র পার্থের সারথি ছিল ; যে দূত আসিয়া রাজার নিকট সকল বিবরণ বলে, সে কহিয়াছিল যে, প্রথম যুদ্ধেই জলদবরণ-পার্থক্রোড়ে তড়িৎবরণী সুভদ্রার অনুপম শোভা দৃষ্টে যাদবগণ মোহপ্রাপ্ত হইয়াছিল। তদবধি ও উপমা আমার বিষ-সদৃশ বোধ হয় । ভাল দেবি, বিবেচনা করিয়া দেখুন দেখি যে, পঞ্চ পাণ্ডব যদি প্রত্যেকে এক এক শত বিবাহ করে, তথাপি তোমার সদৃশ কেহই হইবেক না । এই যে ন ভূত ন ভবিষ্কৃতি রাজস্বয় যজ্ঞে ব্রহ্মর্ষি দেবর্ষি রাজর্ষিগণ কর্তৃক বেদমন্ত্রে