পাতা:স্বর্ণ-শৃঙ্খল নাটক.pdf/৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বর্ণ-শৃঙ্খল নাটক । *> SAMMMAMMAAAASASASS SSSSSS MMMMMMMMAMMMMAMMAAAS AAASASAAMAMM MAMS ছিল, তবে দ্রৌপদীকে লাঞ্ছনা করিবার পূৰ্ব্বেই কেন না করিলেন । এক্ষপে তাহার দারুণ অপমানে জ্বলন্ত অগ্নিবং হইয়াছে । মহারাজ ! দৌপদীর স্বয়ম্বরে রিক্তহন্তে পাণ্ডব দিগের পরাক্রম কি স্মরণ হয় না ? এক্ষণে তাহারা সশস্ত্রে, সসৈন্তে সজ্জিভূত হইয়া আসিলে কি রক্ষা আছে? কে তাহদিগকে প্রবোধ দিবে ? আশু প্রতিফল প্রদানে কে তাহদিগকে বিরত রাখিবে ? দ্রৌপদীর অপমান তো এক প্রকার মহাশয়ের অকুমত্যকুসারেই হইয়াছে । যখন আমি দৌপদীকে সভায় আনাইতে অকুমতি করি, মহাশয় আমাকে বারণ না করিয়া বরঞ্চ “আমার এ স্থলে আর থাক! উপযুক্ত নয়” এই ইঙ্গিত করিয়া সভা হইতে উঠিয়া আসি লেন। এক্ষণে স্বচ্ছন্দে তাহাদিগকে মুক্ত করিয়া দিলেন, ইহাতে আমাকে বিনষ্ট করাই মহাশয়ের মানস । এতদপেক্ষ কেন জন্ম মাত্র অামাকে বিষ প্রদান করেন নাই ? এক্ষণে আমার বিনাশের মূল মহাশয়ই হইলেন । পুলহত্যার পাতক মহাশয়কেই ভোগ করিতে হইবে । আমি শক্রহস্তে প্রাণত্যাগ করিয়া শক্রর মনে আনন্দ প্রদান অপেক্ষ। আত্মহত্যা করিয়া প্রাণত্যাগ করিব।” এইরূপে বিস্তর রোদন করাতে অন্ধ মোহান্ধ হইয়া কহিলেক “দুৰ্য্যোধন । বিগত বিষয়ে অকুশোচনা করিয়া বৃথা অকুতাপ করিও না, আর আমাকেও তাপিত করিও না । কি উপায়ে পাণ্ডব পুনরায় বন্দী হয়; তাহার পরামর্শ কর।” শকুনি উত্তর করিল “উপায় স্থির করাই আছে, পুনরায় পাশাক্রীড়ায় অনুমতি প্রদান করুন । মহাশয় আজ্ঞা করিলে যুধিষ্ঠির কখন অস্বী ஒ