পাতা:হরিলক্ষ্মী.djvu/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
হরিলক্ষ্মী

বিষ হইয়া উঠিল এবং একটা গ্রাসও যেন গলা দিয়া গলিতে চাহিল না। পিসিমা কি একটা কাজে ক্ষণকালের জন্য বাহিরে গিয়াছিলেন, তিনি ফিরিয়া আসিয়া খাবারের অবস্থা দেখিয়া চঞ্চল হইয়া উঠিলেন। ডাক দিলেন, বিপিনের বৌ! বিপিনের বৌ!

 বিপিনের বৌ দ্বারের বাহিয়ে আসিয়া দাঁড়াইতেই তিনি ঝঙ্কার দিয়া উঠিলেন। তাঁর মুহূর্ত্ত পূর্ব্বের করুণা, চক্ষুর নিমেষে কোথায় উবিয়া গেল। তীক্ষ্ণ স্বরে বলিয়া উঠিলেন, এমন তাচ্ছীল্য ক’রে কাজ কর্‌লে ত চল্‌বে না বিপিনের বৌ! বৌমা একটা দানা মুখে দিতে পারলে না, এমনই রেঁধেছ!

 ঘরের বাহির হইতে এই তিরস্কারের কোন উত্তর আসিল না, কিন্তু অপরের অপমানের ভারে লজ্জায় ও বেদনায় ঘরের মধ্যে হরিলক্ষ্মীর মাথা হেঁট হইয়া গেল। পিসিমা পুনশ্চ কহিলেন, চাকরী কর্‌তে এসে জিনিস-পত্র নষ্ট ক’রে ফেল্‌লে চল্‌বে না, বাছা, আরও পাঁচ জনে যেমন ক’রে কাজ করে, তোমাকে তেমনই কর্‌তে হবে, তা ব’লে দিচ্চি।

 বিপিনের স্ত্রী এবার আস্তে আস্তে বলিল, প্রাণপণে সেই চেষ্টাই ত করি পিসিমা, আজ হয় ত কি রকম হয়ে গেছে। এই বলিয়া সে নিচে চলিয়া গেলে, লক্ষ্মী উঠিয়া দাঁড়াইবামাত্র

৩৭