পাতা:হলুদ পোড়া - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

○や হলুদ পোড়া ইহুরের কথাটা সে ভোলে না। ঢাকনির উপর একটা দশসেরি শিল চাপাইয়া দেয়। রান্নাঘর হইতে শিলট নন্দর ঘরে বহিয়া নিয়া যাইতে BDBB D BuDDBDBS DS DDD BDBD DBDBDBBDB DBDB BB DDD চাকরকে বলিলে সে অবশ্য কাজটা করিয়া দিতে পারে, কিন্তু চাকরকে KC DBB DS DBDBDS BDS S BD DBDBDD DBBLLDS BDDB DB চাকরকে টানিতে তাহার ইচ্ছা হয় না। পরদিন সকালে খাবারের খবর নিতে গিয়া দুষ্ঠাখে। অমন ভারি শিলটা সরাইয়া ঢাকনি উল্টাইয়া ঘরময় খাবার ছড়াইয়া রাতারাতি ইদুরে কল্পনাতীত অত্যাচার করিয়া গিয়াছে। ঘরের মাঝখানে দাড়াইয়ু চারিদিকে চাহিয়া সুমতি হাসিবে না। কঁদিবে। ভাবিয়া পায় না।" কি BBDD DBD S SDD BDBS tBBDBBS BBD SBD DD DBDD DDD শেখে নাই। ঘরময় মিনতি লিখিয়া রাখিয়া গিয়াছে,-আমায় প্রশ্ৰয় eि कक्रवामी ! . অথচ এ ধেনু খাপ খায় না, এ যেন অৰ্থহীন। সুমতির চোখে সহসা জল আসিয়া পড়ে। ঘরের কোণে ওই রঙচটা তো বঙ্গ, দেয়ালের গায়ে পেরেকে ঝোলানো অশািধ ময়লা একটা পাঞ্জাবী, তক্তপোষে পুরাণে তোষকের বিছানা আর বালিশের, পাশে ওই এক-তাড়া মনিঅৰ্ডারের রসিদ—ছড়ানো খাবারগুলির সঙ্গে এই সবের সামঞ্জত নাই যে একেবারেই। সুমতির মনে হয় বজের মত কঠোর ফুলের মত কোমল এই লোকটি যে তাহার জীবনে পদার্পণ করিয়াছে তার মধ্যে প্রচুর অমঙ্গলের সম্ভাবনা লুকানো আছে, ইহাকে তাহার ভয় করিয়া চলা উচিত। এ একদিন তাহাকে বিপন্ন করিবে। ” নন্দর প্রকৃতির গভীর দিকটার সঙ্গে সুমতির পরিচয় বেশী দিনের ତୁ; ।