পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের নবজাগরণ সমূহকে শাসন করিতেছে। অতএব মহাপুরুষগণের পুতশোণিতে পূরিতধমনী, তথাবিধ আচার্যগণের আশীৰ্ব্বাদে ধন্যজীবন, তোমরা যে ভগবান শ্রীরামকৃষ্ণের বাণী সৰ্ব্ব প্রথম বুঝিবে ও আদরপূর্বক গ্রহণ করিবে, তাহাতে বিস্ময়ের বিষয় কি আছে ? দাক্ষিণাত্যই চিরদিন বেদবিদ্যার ভাণ্ডার, সুতরাং তোমরা বুঝিবে যে, অজ্ঞ হিন্দুধৰ্ম্ম-আক্রমণকারী সমলোচকগণের পুনঃ পুনঃ প্রতিবাদসত্বেও এখনও শ্রুতিই (১) হিন্দুধৰ্ম্মের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মেরুদণ্ড স্বরূপ। জাতিবিদ্যাবিৎ বা ভাষাতত্ত্ববিৎ পণ্ডিতদিগের নিকট বেদের সংহিতা ও ব্রাহ্মণভাগের (২) যতই মূল্য হউক, ‘অগ্নিমীলে’, ‘ইষেত্বোর্জেত্বা’, ‘শন্নোদেবীরভীষ্টয়ে’, (৩) (১) বেদ । (২) চতুৰ্ব্বেদের প্রত্যেকটিতে তিনটি করিয়া অংশ আছে। যথা–(ক) ভিন্ন ভিন্ন দেবগণের উদেশুে স্তোত্রাত্মক মন্ত্রসমূহের নাম সংহিতা ; (খ) এই সকল মন্ত্র কোন যজ্ঞে কিরূপে প্রয়োগ করিতে হইবে, তাহার বর্ণাত্মক বেদভাগের নাম ব্রাহ্মণ ; (গ) অরণ্যে ঋষিগণদ্বারা আলোচিত তত্ত্বসমূহের নাম আরণ্যক । উপনিষৎসমূহ এই আরণ্যকের অন্তর্গত। - (৩) এই তিনটি যথাক্রেমে ঋক্, যজুঃ ও অথর্ববেদের প্রথম শ্লোকের অংশস্বরূপ । 8