পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের নবজাগরণ মহাত্মা স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতীও (১) এতদ্বিধ মত পোষণ করিতেন । যদি কেহ জিজ্ঞাসা করেন, প্রাচীন ও বর্তমান সমুদয় ভারতীয় চিন্তাপ্রণালীর কেন্দ্র কোথায়, যদি কেহ নানাবিধ শাখাপ্রশাখাবিশিষ্ট হিন্দুধৰ্ম্মের প্রকৃত মেরুদণ্ড কি, জানিতে চান, তবে অবশ্য ব্যাসসূত্রকেই এই কেন্দ্র, এই মেরুদণ্ড বলিয়া প্রদশিত হইবে । হিমাচলস্থিত অরণ্যানীর হৃদয়স্তব্ধকারী গাম্ভীর্য্যের মধ্যে স্বর্ণদীর গভীর ধ্বনিমিশ্রিত অদ্বৈতকেশরীর অস্তিভাতি-প্রিয়রাপ ( ২ ) বজগস্তীর রবই কেহ শ্রবণ করুন, অথবা বৃন্দাবনের মনোহর কুঞ্জসমূহে ‘পিয়া পীতম্’ (৩) কুজনই শ্রবণ করুন, বারাণসীধামের মঠসমূহে সাধুদিগের গভীর ধ্যানেই যোগদান করুন, অথবা নদীয়া ( ১ ) আর্য্যসমাজের বিখ্যাত প্রতিষ্ঠাতা । ইহার মত পঞ্জাবে খুব প্রচলিত। ব্রাহ্মদের সঙ্গে ইহারা অনেক বিষয়ে একমত । (২) অদ্বৈতকেশরী—অদ্বৈতবাদরূপ সিংহ অর্থাৎ সৰ্ব্বমতশ্রেষ্ঠ অদ্বৈতবাদ । অস্তি, ভাতি ও প্রিয় = সৎ, চিৎ, আনন্দ । এই তিনটি শব্দ পঞ্চদশীতে ব্যবহৃত হইয়াছে। (৩) ভাৰুক বৈষ্ণবেরা, বৃন্দাবনের কুঞ্জমধ্যে বিহঙ্গগণের গীতিমধ্যে এই ধবনি শুনিতে পান—অর্থ, রাধাকৃষ্ণ । b"