পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের সার্বভৌমিকত হিন্দুধৰ্ম্মের প্রমাণ্য গ্রন্থস্বরূপ, প্রাচীন নারশংসীর (১) প্রতিনিধিস্বরূপ পুরাণ উহার উপাখ্যানভাগ এবং বৈদিক ব্রাহ্মণভাগের প্রতিনিধিস্বরূপ তন্ত্র উহার কৰ্ম্মকাণ্ড । পূর্বোক্ত প্রস্থানত্রয় সকল সম্প্রদায়েরই প্রামাণ্যগ্রন্থ, কিন্তু প্রত্যেক সম্প্রদায়ই পৃথক পৃথক পুরাণ ও তন্ত্রকে প্রমাণস্বরূপে গ্রহণ করিয়া থাকেন। আমরা পূর্বেই বলিয়াছি, তন্ত্রগুলি বৈদিক কৰ্ম্মকাণ্ডেরই একটু পরিবর্তিত আকারমাত্র, আর কেহ উহাদের সম্বন্ধে হঠাৎ একটা অসম্বন্ধ সিদ্ধান্ত করিবার পূর্বেই তাহাকে আমি ব্রাহ্মণ ভাগ, বিশেষত, অধ্বর্য - ব্রাহ্মণ ভাগের সহিত মিলাইয়া তন্ত্র পাঠ করিতে পরামর্শ দিই ; তাহ হইলে তিনি দেখিবেন, তন্ত্রে ব্যবহৃত অধিকাংশ মন্ত্রই অবিকল ব্রাহ্মণ হইতে গৃহীত। ভারতবর্ষে তন্ত্রের প্রভাব কিরূপ, জিজ্ঞাসা করিলে বলা যাইতে পারে যে, শ্রেীত ও স্মাৰ্ত্ত কৰ্ম্ম ব্যতীত হিমালয় হইতে কন্যাকুমারী পৰ্য্যন্ত সমুদয় প্রচলিত কৰ্ম্মকাণ্ডই তন্ত্র হইতে গৃহীত আর উহা শাক্ত, শৈব, বৈষ্ণব প্রভৃতি সকল সম্প্রদর্শয়েরই উপাসনাপ্রণালীকে নিয়মিত করিয়া থাকে । অবশ্য, আমি এ কথা বলি না যে, সকল হিন্দুই ( ১ ) সংহিতা >>