পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের নবজাগরণ প্রধান প্রধান ধৰ্ম্মাচাৰ্য্য এবং তাহাদের শিষ্যগণের উপদেশাবলি জানিতে হুইবে । ভ্রাতৃগণ, যদি তোমরা গৌতমসূত্র হইতে আরম্ভ করিয়া বাৎস্তায়ন ভাষ্যের আলোকে ‘আগু’ (১) সম্বন্ধে র্তাহার মত পাঠ কর, শবর ও অন্যান্য ভাষ্যকারগণের সাহাষ্যে যদি মীমাংসকগণের মত আলোচনা কর, অলৌকিক, প্রত্যক্ষ ও আপ্ত সম্বন্ধে এবং সকলেই আপ্ত হইতে পারে কিনা এবং এইরূপ অগ্রগুদিগের বাক্য বলিয়াই ষে বেদের প্রামাণ্য, এই সকল বিষয়ে তাহাদের মত যদি অধ্যয়ন কর, যদি তোমাদের মহীধরকৃত যজুর্বের্বদভাষ্যের উপক্রমণিকা দেখিবার অবকাশ থাকে, তবে তাহাতে দেখিবে, মানবের আধ্যাত্মিক জীবন ও বেদের নিয়মাবলি সম্বন্ধে আরও সুন্দর সুন্দর বিচার অাছে। র্তাহার। তাই সিদ্ধান্ত করিয়াছেন, বেদ অনাদি অনন্ত । স্থাষ্ট্রর অনাদিত্ব’ মত সম্বন্ধে বক্তব্য এই ঐ মত, কেবল হিন্দুধৰ্ম্মের নহে, বৌদ্ধ ও জৈনধৰ্ম্মেরও উহ একটি প্রধান ভিত্তি । এক্ষণে, ভারতীয় সমুদয় সম্প্রদায়কে মোটামুটি জ্ঞানমার্গ বা ভক্তিমাগাঁ বলিয়া শ্রেণীবদ্ধ করা যাইতে পারে। (১) যিনি পাইয়াছেন -যিনি আত্মতত্বের সাক্ষাৎ করিয়াছেন। মনুষ্যস্বভাব-সুলভ দুৰ্ব্বলতাবিমুক্ত পুরুষ । २ ०