পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের নবজাগরণ ভুলিয়া গিয়াছে, মিশনরীগণই উহার অর্থ আবিষ্কার করিয়াছেন, তথাপি আমি সেই সমবেত বৃহৎ মিশনারীমণ্ডলীর মধ্যে একজনকে দেখিতে পাইলাম না, যিনি সংস্কৃত ভাষার একটি পংক্তি পর্য্যন্ত বুঝেন, কিন্তু তাহাদের মধ্যে অনেকে বেদ, বেদান্ত ও হিন্দুধৰ্ম্মের যাবতীয় পবিত্র শাস্ত্রসম্বন্ধে সমালোচনা করিয়া বড় বড় গবেষণাপূর্ণ প্রবন্ধ পাঠ করিয়াছিলেন । +. আমি কোন ধৰ্ম্মের বিরোধী, এ কথা সত্য নহে। আমি ভারতীয় খ্ৰীশ্চিয়ান মিশনারীদের বিরোধী এ কথাও তক্রপ সত্য নহে। তবে আমি আমেরিকায় তাহাদের টাক তুলিবার কতকগুলি উপায়ের প্রতিবাদ করি । বালকবালিকার পাঠ্য পুস্তকে অঙ্কিত ঐ চিত্রগুলির অর্থ কি ? চিত্রে অঙ্কিত রহিয়াছে, হিন্দুমাত তাহার সন্তানগণকে গঙ্গায় কুন্তীরের মুখে নিক্ষেপ করিতেছে। জননী কৃষ্ণকায়া, কিন্তু শিশু শেতাঙ্গরূপে অঙ্কিত ; ইহার উদ্দেশ্য, শিশুগণের প্রতি অধিক সহানুভূতি আকর্ষণ ও অধিক চাদ্যসংগ্রহ। ঐ ছবিগুলির অর্থ কি ? একজন পুরুষ তাহার স্ত্রীকে নিজ হস্তে একটি কাষ্ঠস্তন্তে বাধিয়া পুড়াইতেছে—উদ্দেশ্য সে ভূত হইয় তাহার স্বামীর শত্রগণকে পীড়ন করিবে ? বড়বড় রথ রাশিরাশি মনুষ্যকে চাপিয়া মারিয়া ミb"