পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের সার্বভৌমিকত বৌদ্ধ, জৈন সকলেরই সাধারণ উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্য, তাহার উপর দণ্ডায়মান হই আইস । সেই কেন্দ্রীভূত সত্য এই মানবাত্মা, অজ, অবিনাশী, সৰ্ব্বব্যাপী, অনন্ত মানবাত্মা, র্যাহার মহিমা স্বয়ং বেদ প্রকাশ করিতে অক্ষম, যাহার মহিমার সমক্ষে অনন্ত সূৰ্য্য চন্দ্র তারকা ও নীহারময় নক্ষত্রপুঞ্জ বিন্দুতুল্য। প্রত্যেক নরনারী, শুধু তাহাই নহে উচ্চতম দেব হইতে তোমাদের পদতলস্থ ঐ কীট পৰ্য্যন্ত সকলেই ঐ আত্মা, হয় উন্নত, নয় অবনত । প্রভেদ—প্রকারগত নহে, পরিমাণগত । - আত্মার এই অনন্ত শক্তি, জড়ের উপর প্রয়োগ করিলে ভৌতিক উন্নতি হয়, চিন্তার উপর প্রয়োগ করিলে মনীষার বিকাশ এবং আপনার উপর প্রয়োগ করিলে মানুষকে ঈশ্বর করিয়া তুলে। প্রথম আমরা ব্ৰহ্মত্ব লাভ করি আইস, পরে অপরকে ব্ৰহ্ম হইতে সাহায্য করিব। আপনি সিদ্ধ হইয়া অপরকে সিদ্ধ হইতে সহায়তা কর, ইহাই আমাদের মূলমন্ত্র হউক। মানুষকে পাপী বলিও না। তাহাকে বল, তুমি ব্ৰহ্ম । যদিও শয়তান কেহ থাকে, তথাপি আমাদের ব্ৰহ্মকেই স্মরণ করা কর্তব্য—শয়তানকে নহে। ' x যদি গৃহ অন্ধকার থাকে, তবে সৰ্ব্বদা ‘অন্ধকার’ ‘অন্ধকার বলিয়া দুঃখ প্রকাশ করিলে অন্ধকার দূর হইবে 8X