পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/৬৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের ক্রমাভিব্যক্তি কৰ্ম্মকাণ্ডের প্রাধান্য রহিল না, কৰ্ম্মকাণ্ডের অধিকাংশ একেবারে চিরকালের জন্য চলিয়া গেল । - এই উত্থানের নাম বৌদ্ধ সংস্কার । ধৰ্ম্মের দিকে উহাতে কৰ্ম্মকাণ্ড হইতে বিমুক্তি সূচনা করিতেছে আর রাজনীতির দিকে ক্ষত্রিয়গণের দ্বারা ব্রাহ্মণপ্রাধান্ত বিনাশ সূচিত হইতেছে। ইহা বিশেষ লক্ষ্য করিবার বিষয় যে, প্রাচীন ভারতে যে সর্বশ্রেষ্ঠ দুইজন ব্যক্তি জন্মগ্রহণ করিয়াছিলেন, তাহারা উভয়েই ক্ষত্রিয় ছিলেন—কৃষ্ণ ও বুদ্ধ—ইহা অারে। বেশী লক্ষ্য করিবার বিষয় যে, এই দুই অবতারই লিঙ্গজাতিবর্ণনির্বির্বশেষে সকলকেই জ্ঞানের দ্বার খুলিয়া দিয়াছিলেন ।

  • বৌদ্ধধৰ্ম্মের অদ্ভূত নীতিবলসত্বেও উহার অধিকাংশ শক্তিই ধ্বংসকার্য্যে নিয়োজিত হওয়াতে উহাকে উহার জন্মভূমিতেই মৃত্যুলাভ করিতে হইল আর উহার যাহা কিছু অবশিষ্ট রহিল, তাহাও, উহা যে সকল কুসংস্কার ও ক্রিয়াকাণ্ড নিবারণে নিয়োজিত হইয়াছিল, তদপেক্ষা শতগুণ ভয়ানক কুসংস্কার ও ক্রিয়াকাণ্ডে পূর্ণহইয়া উঠিল। যদিও উহা আংশিক ভাবে বৈদিক পশুবলি নিবারণে কৃতকাৰ্য্য হইয়াছিল, কিন্তু উহা সমুদয় দেশকে মন্দির, প্রতিমা, যন্ত্র ও সাধুগণের অস্তিতে পূর্ণ করিয়া ফেলিল ।

@@