পাতা:হিন্দুধর্ম্মের নবজাগরণ - দ্বিতীয় সংস্করণ.pdf/৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হিন্দুধৰ্ম্মের নবজাগরণ হৃদয়ধ্বনি যেন উপনিষদের সেই সুরে সেই তালে ধ্বনিত হইতেছে, “তমেবৈকং জানথ আত্মানম্ অন্যা বাচে বিমুঞ্চথ,”—“সেই এক আত্মাকে জান, অন্য বাক্য ত্যাগ কর ।” - যদিও তিনি একজন ব্রহ্মাণ্ড আলোড়নকারী পণ্ডিত ও দার্শনিক, তথাপি তাহার পাণ্ডিত্য ও দর্শন র্তাহাকে ক্রমশঃ উচ্চ হইতে উচ্চে লইয়া গিয়া আত্মসাক্ষাৎকারে সমর্থ করিয়াছে, তাহার অপর বিদ্যা বাস্তবিকই তাহাকে পরাবিদ্যা লাভে সহায়তা করিয়াছেন । ইহাই প্রকৃত বিদ্যা । বিদ্যা দদাতি বিনয়ং । জ্ঞান যদি আমাদিগকে সেই পরাৎপরের নিকট না লইয়া যায়, তবে জ্ঞানের আবশ্যকতা কি ? আর ভারতের উপর তাহার কি অনুরাগ ! যদি আমার তাহার শতাংশের একাংশও থাকিত, তাহ হইলে আমি ধন্য হইতাম । এই অসাধারণ মনস্বী পঞ্চাশ বা ততোধিক বৎসর ধরিয়া ভারতীয় চিন্তারাজ্যে বসবাস ও বিচরণ করিয়াছেন ; পরম আগ্রহ ও হৃদয়ের ভালবাসার সহিত সংস্কৃত সাহিত্যরূপ অনন্ত অরণ্যের আলো ও ছায়ার বিনিময় পৰ্য্যবেক্ষণ করিয়াছেন, শেষে ঐ সমুদয় তাহার হৃদয়ে বসিয়া গিয়াছে এবং তাহার সর্ববাঙ্গে উহার রঙ ধরাইয়া দিয়াছে। ૧૦