পাতা:১৯০৫ সালে বাংলা.pdf/৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ७२ ] নামে প্রহারের অভিযোগ উপস্থিত করে । ক্যাটেল সাহেব ও অনস্তমোহনের নামে এবং কালীনাথ, নেপালচন্দ্র, স্বধন্ত, ভূইমালি, ভুবনমোহন গুহ এবং বসন্তকুমার গুহ নামক কতিপয় বালক ও যুবকের বিরুদ্ধে লোষ্ট্র ক্ষেপের অভিযোগ করেন । বিচারে कार्टाठेल नारङ्ब श्रदथझे निष्कुडि श्रांझेब्राएझन ! श्रनख८भांश्न झग्न সপ্তাহের জন্য শ্ৰীঘরে প্রেরিত হন। আপীলে ফলোদয় হয় নাই। সম্মান নিদর্শন রজতপদক অনস্তমোহনের নিকট প্রেরিত হইল । মাদারিপুরের আদর্শ শিক্ষক বাবু কালীপ্রসন্ন দাস অনন্য সাধারণ সৎসাহস ও সুদৃষ্টান্তে ঐ স্থানে স্বদেশী আন্দোলন অক্ষুণ্ণ রাখিয়াছিলেন তাহারই ফলে তিনি কৰ্ম্মচু্যত পৰ্য্যস্ত হন। তাহার প্রতি বঙ্গদেশের অধিবাসী প্রত্যেকেরই স্কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা উচিত। সেই কৃতজ্ঞতার নিদর্শন স্বরূপ রজত নিৰ্ম্মিত “বন্দে মাতরম্ ব্ৰুচ বা বন্ধনী তাহার নিকট প্রেরি গু হইল। মাদারিপুরের ছাত্রগণের মোকদ্দমার পরিণাম ও বিবরণ সংবাদপত্রে এইরূপে বিবৃত হইয়াছে –অনন্ত মোহন দাস গত অক্টোবর মাসে মিঃ ক্যাটেল সাহেব কর্তৃক প্রহৃত হয় ; তাহাতে তাহার নাসিকায় বিলক্ষণ আঘাত লাগে । সেই জন্য সে মিঃ ক্যাটেলের বিরুদ্ধে এক অভিযোগ আনয়ন করে। ডিষ্ট্রক্ট ম্যাজিষ্ট্রেট সেই মোকদম ডিসমিস করেন এবং আসামী ক্যাটেল সাহেবকে অব্যাহতি দেন। গত নবেম্বর মাসে মিঃ ক্যাটেল উক্ত আনন্দমোহন ও অপর কয়েকজন ছাত্রের বিরুদ্ধে এক অভিযোগ উপস্থিত করেন । পুলিশ ৭, ৮, ১০, ১৬ ও ১৭ বৎসর