পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/১১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অনন্তনাথ অনন্তনাথ চতুর্দশ জৈন তীর্থংকর। ইহার পিতা কোশলাধিপতি সিংহসেন এবং মাতা রাজ্ঞী সুযশ। মাতা গর্ভাবস্থায় স্বপ্নে একটি অনন্ত মুক্তার মালা দেখিয়াছিলেন। সেইজন্য পুত্রের নাম রাখা হইল অনন্ত। ইনি অশ্বখবৃক্ষের মূলে সিদ্ধিলাভ করিয়াছিলেন। ইহার চিহ্ন সজারু, নির্বাণ সুমেরু শিখরে।। সত্যরঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায় অনন্তবর্মা চোড়গঙ্গ পূর্বগজ বংশীয় বিখ্যাত নৃপতি। তিনি উৎকল দেশ জয় করেন। প্রায় সত্তর বৎসর ব্যাপী শাসনকালে ( আনুমানিক ১০ ৭৬-১১৪৮ খ্রী) তিনি চোল, চালুক্য ও পাল বংশীয় রাজগণের সহিত যুদ্ধ করিয়া এক বিশাল রাজ্যের প্রতিষ্ঠা করিয়াছিলেন। তাঁহার সময়ে পূর্বগঙ্গ রাজ্যের সীমানা উত্তরে গঙ্গা নদীর মােহনা হইতে দক্ষিণে গােদাবরী নদীর মােহনা পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। অনন্তবর্মা ধর্ম ও শিল্পেরও পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। পুরীর জগন্নাথদেবের মন্দির তাহার রাজত্বকালেই নির্মিত হয়। | সৌরীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য অনন্ত ব্ৰত ভাদ্রমাসের শুক্লা চতুর্দশীতে চতুর্দশ বর্ষ যাবৎ এই ব্রত করণীয়। ব্ৰতােপলক্ষে অনন্তদেব বা বিষ্ণুর পূজা করিতে হয়। পূজায় অন্যান্য সাধারণ দ্রব্যের সহিত চতুর্দশ ফল এবং যব, গোধুম বা তণ্ডুলচূর্ণ দ্বারা প্রস্তুত পিষ্টক দেবতাকে নিবেদন করিতে হয়। ব্রতীকে চতুর্দশসূত্রনির্মিত ও বিষ্ণুনামপূত চতুর্দশাগ্রন্থিযুক্ত ডাের বাহুতে ধারণ ও ব্রতকথা শ্রবণ করিতে হয়। ব্রতের ব্যবস্থা বাংলার রঘুনন্দনের ‘তিথিতত্ত্ব ও মিথিলার রুদ্রদেবের ‘বর্ষকৃত্য প্রভৃতি গ্রন্থে বিবৃত হইয়াছে।। চিন্তাহরণ চক্রবর্তী অনন্তলাল বন্দ্যোপাধ্যায় (১২৩৯-১৩০৩ বঙ্গাব্দ)। অনন্তলাল বিষ্ণুপুর ঘরানার গায়ক ও গীতরচয়িতা। বিষ্ণুপুরের সংগীতগুরু রামশংকরের শেষ জীবনের তিনি অন্যতম শিষ্য। স্থানীয় সংগীত বিদ্যালয়ের তিনি অধ্যক্ষ ছিলেন। বিষ্ণুপুরের রাজার সংগীত-সভায় গায়ক রূপে অনন্তলাল আজীবন জন্মভূমিতে বাস করিয়াছেন। সংগীতজগতে তাহার তিন কৃতী পুত্র রামপ্রসন্ন, গােপেশ্বর ও সুরেন্দ্রনাথের মধ্যে প্রথম দুই জনের প্রথম সংগীত শিক্ষা পিতার নিকটে। রচিত গীতাবলীর মধ্যে ‘একি রূপ হেরি হরি’, ‘দীনতারিণী বােলে মা’, ‘মধু ঋতু আই’ ইত্যাদি সমধিক প্রসিদ্ধ। বিষ্ণুপুরবাসী আরও কয়েকজন গায়ক তাঁহার শিষ্য ছিলেন। ভা ১৭