পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অক্ষয়কুমার দত্ত খ্ৰীষ্টীয় ধর্মযাজকগণ কর্তৃক বলপূর্বক হিন্দুদিগকে খ্ৰীষ্টধর্মে দীক্ষাদানের বিরুদ্ধে দেবেন্দ্রনাথ যখন সমগ্র শিক্ষিত হিন্দুসমাজকে সংঘবদ্ধ করিবার জন্য উদ্যোগী হন, তখন সেই কার্যেও তিনি অক্ষয়কুমারকে সহযােগী রূপে পাইয়াছিলেন। ‘তত্ত্ববােধিনী পত্রিকার পৃষ্ঠায় নীলকর সাহেবদের অত্যাচার ও জমিদারগণের নিষ্ঠুর প্রজাপীড়নের বিরুদ্ধেও অক্ষয়কুমার লেখনীচালনা করেন। ১৮৫৫ খ্ৰী ১৭ জুলাই কলিকাতায় নর্মাল স্কুল প্রতিষ্ঠিত হইলে, প্রতিষ্ঠাতা বিদ্যাসাগরের অনুরােধে তিনি মাসিক ১৫০ টাকা বেতনে প্রধান শিক্ষকের কার্যভার গ্রহণ করেন। কিন্তু শিয়ােরােগের প্রাবল্যে ১৮৫৮ খ্রী, আগস্ট মাসে তাহাকে এই পদ পরিত্যাগ করিতে হয়। সেই সময় প্রধানতঃ বিদ্যাসাগরের প্রচেষ্টায় তত্ত্ববােধিনী সভা হইতে তাঁহাকে মাসিক ২৫, টাকা বৃত্তিদানের ব্যবস্থা হয়। কিন্তু অল্পকালের মধ্যেই। | তাহার পুস্তকের আয় বৃদ্ধি পাওয়াতে তিনি উক্ত বৃত্তি পরিত্যাগ করেন। | রামমােহনের মৃত্যুর পর যখন দেবেন্দ্রনাথ কর্তৃক ব্রাহ্ম| সমাজ নৃতনভাবে সংগঠিত হইল তখন ব্রাহ্মসমাজের চিন্তাধারায় প্রধানতঃ দুইটি বৈশিষ্ট্য দেখা দিয়াছিল। ইহার একটি ভক্তিবাদ, অপরটি যুক্তিবাদ। রামমােহনের চিন্তাধারার মধ্যে এই দুই ধারার সুন্দর সমন্বয় লক্ষ্য করা যায়, বৈদান্তিক ব্রহ্মজ্ঞানের সহিত তিনি পাশ্চাত্ত্য জ্ঞান-বিজ্ঞানকে | সার্থকভাবে মিলাইতে পারিয়াছিলেন। পরবর্তী কালের ব্রাহ্মসমাজের নেতৃবৃন্দের চিন্তাধারায় ব্যক্তিগত প্রকৃতি অনুসারে কখনও বা প্রথমটি কখনও বা দ্বিতীয়টির উপর | ঝোঁক পড়িয়াছে। অক্ষয়কুমার তাহার জীবনে, চিন্তায় ও রচনায় মুখ্যতঃ রামমােহনের জীবনদর্শনের এই যুক্তিবাদী দিকটিকেই ফুটাইয়া তুলিয়াছেন। এই ক্ষেত্রে তিনি প্রধান হইলেও একক ছিলেন না। তাহাদের একটি দল ছিল। ভক্তিবাদী দেবেন্দ্রনাথের সহিত তাহাদের সময়ে সময়ে মতবিরােধও হইত, যদিও এই মতভেদ তাহাদের মধ্যে কখনও বিচ্ছেদ ঘটায় নাই। অভ্রান্ত শাস্ত্রে বিশ্বাসবর্জন সর্ববিধ সামাজিক কুপ্রথার উচ্ছেদ ও সমাজকল্যাণ -মূলক ব্যবস্থার প্রচলন প্রভৃতি বিষয়ে অক্ষয়কুমার প্রমুখ যুক্তিবাদী ব্ৰাহ্মদিগের অকুণ্ঠ সমর্থন ছিল। এইস্থলে উল্লেখ যােগ্য, ব্রাহ্মসমাজে সংস্কৃত ভাষার পরিবর্তে বাংলা ভাষায় ঈশ্বরােপাসনা প্রবর্তনের অক্ষয়কুমার অন্যতম সমর্থক ছিলেন। ব্রাহ্ম হইলেও তিনি প্রার্থনার আবশ্যকতা স্বীকার করিতেন না। শেষ জীবনে তিনি অনেকটা অজ্ঞাবাদী (agnostic ) হইয়া উঠেন। পাশ্চাত্ত্য যুক্তিবাদী দার্শনিক ও বৈজ্ঞানিক গ্রন্থের আদর্শে বাংলা