পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অগ্নি ঐতরেয় ব্রাহ্মণের এক স্থলে অগ্নিকে ‘দিব্য’ ও ‘অপমৎ’ এই বিশেষণদ্বয়ের দ্বারাও বিশেষিত করা হইয়াছে। বৈদিক মন্ত্রসমূহে অরণি-দ্বয়ের সংঘর্ষণ হইতে যজ্ঞিয় অগ্নির উৎপত্তি প্রায়শঃই বর্ণিত হইয়াছে-‘উত স্ম যং শিশুং যথা নবং জনিষ্ঠ অরণী’ ( ঋ ৫. ৯৩ )। ঋগবেদীয় মন্ত্রসমূহে অগ্নির সহিত ‘ত্রিত্ব’ সংখ্যার সম্বন্ধ বিশেষভাবে লক্ষণীয়। তিনি ‘ত্রিষধস্থ,’ ‘ত্রিপস্ত্য'; ‘গার্হপত্য, ‘আহবনীয়’ ও ‘দক্ষিণ’ রূপে তাহার রূপত্ৰয়ও সুবিদিত। ‘হব্য-বাহন’, ‘ক্রব্য-বাহন’ ও ‘আমা’ রূপে তঁাহার ত্রিবিধ রূপও যজুর্বেদে দৃষ্ট হয়। | ঋগবেদে ‘দৈববাদাস’, ‘াসদস্যব’, ‘বাধশ্ব’ প্রভৃতি রূপে অগ্নির বিশেষণও দৃষ্ট হয়। ইহা হইতে অনুমিত হয়। যে প্রাচীন ব্রাহ্মণ ও রাজন্যগণ কর্তৃক অগ্নির উপাসনা বিশেষভাবে প্রচলিত ছিল। ঋগবেদে প্রধানতঃ রক্ষক ও পুত্র, পশু, হিরণ্য প্রভৃতির দাতা রূপে অগ্নির আবাহন লক্ষিত হয়। তিনি বিপতি', তিনি ‘রক্ষোহ। অগ্নি এই শব্দটির সহিত ইন্দো-ইওরােপীয় ভাষাগােষ্ঠীর অন্তভূত ল্যাটিন ও স্লাভনিক ভাষায় প্রচলিত যথাক্রমে ignis এবং ogni শব্দদ্বয়ের সাদৃশ্য লক্ষণীয়। ইন্দো-ইরানীয় আর্যগণের মধ্যে অগ্নিপূজার সবিশেষ প্রচলন সুবিদিত। ‘বৈশ্বানর’, ‘তনপাং’, ‘নরাশংস প্রভৃতি রূপেও ঋগবেদে অগ্নির আবাহন দৃষ্ট হইয়া থাকে। ū A. A. Macdonell, Vedic Mythology, Strassburg, 1897 ; J. Muir, Original Sanskrit Texts, vol. V. 3rd Edn. London, 1884 ; M. Bloomfield, Rig Veda Repititions, Part 2, Harvard Oriental Series, vol. XXIV, 1916. বিষ্ণুপদ ভট্টাচার্য অগ্নি বহু ধর্মীয় অনুষ্ঠানের সহিত অগ্নির সম্পর্ক অচ্ছেদ্য। অগ্নির পবিত্রতা সর্ব ধর্মে স্বীকৃত। প্রাচীন কালে বহু স্থানে অগ্নিপূজা প্রচলিত ছিল। বর্তমানে ভারতবর্ষীয় জরথুস্ত্রবাদী পাৰ্শী সম্প্রদায় অগ্নিপূজক। পুরাণের মতে ধর্মের ঔরসে বসুভার্যার গর্ভে তাঁহার জন্ম। মতান্তরে তিনি ব্রহ্মার মুখ হইতে উৎপন্ন। অগ্নির ভার্যা স্বাহা। ‘অগ্নিপূজা’ দ্র। সুধাংশুপ্রকাশ চৌধুরী অগ্নিকুল পৃথ্বীরাজ রাসস এবং অন্যান্য গ্রন্থে বর্ণিত রাজপুতদের উৎপত্তি সম্বন্ধে প্রচলিত কাহিনী অনুসারে