পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অচিন্ত্যভেদাভেদবাদ চৈতন্যময়ী। চিদ্রপতত্ত্বের দিক দিয়া জীব শক্তি অন্তরঙ্গ চিচ্ছক্তির সমজাতীয়া হইলেও উহা অন্তরঙ্গা নহে। অন্তরঙ্গাশক্তি ভগবান্ শ্রীকৃষ্ণের স্বরূপে নিত্য অবস্থান করে, কিন্তু ভগবানের স্বরূপের মধ্যে জীব শক্তির স্থিতি নাই। জীব শক্তির স্থান মায়া শক্তির উর্ধ্বে এবং চিচ্ছক্তির নিয়ে। এই শক্তি অন্তরঙ্গ চিচ্ছক্তি ও বহিরঙ্গা মায়া শক্তির মধ্যবর্তিনী। ইহা চিচ্ছক্তির অন্তভুক্ত নহে, ইহা মায়া শক্তির অন্তর্ভুক্তও নহে বলিয়া ইহাকে তটস্থা শক্তি বলা হয়। ভগবানের স্বরূপগত চিচ্ছক্তি কখনও মায়া শক্তির গুণের দ্বারা রঞ্জিত হয় না, কিন্তু জীব শক্তি মায়া শক্তির অন্তর্ভুক্ত না হইলেও মায়ার গুণরাগে রঞ্জিত হইতে পারে। জীব পরব্রহ্মের অংশ। কিন্তু টঙ্কছিন্ন পাষাণখণ্ডকে যে অর্থে অখণ্ড শিলার অংশ বলা হয়, জীবকে সেই অর্থে পরব্রহ্মের অংশ বলা যায় না, যেহেতু ব্ৰহ্ম অচ্ছেদ্য। অংশপদের অর্থ এখানে একদেশ। পরব্রহ্মের অনন্ত শক্তির মধ্যে তাহার জীব শক্তিও একদেশমাত্র। জীব পরব্রহ্মের শক্তি বলিয়াই তাহাকে পরব্রহ্মের অংশ বলা হইয়াছে। শক্তি কখনও শক্তিমান হইতে পৃথক হইয়া থাকিতে পারে | না। কি মায়া শক্তি, কি স্বরূপ শক্তি, কি জীব শক্তি সকল শক্তির সত্তাই পরব্রহ্মের উপর নির্ভরশীল। পরব্রহ্মের সহিত তাহার সকল শক্তির যোেগ এক প্রকার নহে। অন্তরঙ্গ। চিচ্ছক্তির সহিত তাহার যােগ সর্বাপেক্ষা ঘনিষ্ঠ। | উহা তাঁহার স্বরূপেই অবস্থান করে। তিনি বহিরঙ্গা | মায়া শক্তিরও নিয়ন্তা, মায়া তাহার আশ্রয় না পাইলে থাকিতেই পারে না; সুতরাং মায়া শক্তিও তাহার সহিত যুক্ত। কিন্তু মায়। কখনও তাহাকে স্পর্শ করিতে পারে না। জীব পরব্রহ্মের অংশ হইলেও স্বরূপ শক্তি যুক্ত পরব্রহ্মের অংশ নহে। স্বরূপ শক্তি বিশিষ্ট পরব্রহ্মের অংশের নাম স্বাংশ। চতুবুহ, পরব্যোমস্থ অনন্ত ভগবৎস্বরূপ, পুরুষাবতারগণ, লীলাবতারগণ এবং গুণাবতারাদি স্বাংশের অন্তর্গত। জীবকে মায়া শক্তি যুক্ত পরব্রহ্মের অংশও বলা যায় না, কারণ চেতন পদার্থ জড় পদার্থের অংশ বলিয়া পরিগণিত হইতে পারে না। বস্তুতঃ জীব শক্তি বিশিষ্ট পরব্রহ্মের অংশই জীব। জীব পরব্রহ্মের বিভিন্নাংশ, পরব্রহ্মের স্বরূপের মধ্যে তাহার অবস্থান নাই। ভগবৎস্বরূপসমূহ পরব্রহ্মের বিগ্রহের অন্তর্ভুক্ত। তাহারা শক্তিতে নন বলিয়া তাহাদিগকে পরব্রহ্মের অংশ বলা হইয়া থাকে। পরব্রহ্ম সূর্যমণ্ডলতুল্য এবং জীবগণ সূর্যরশ্মিতুল্য। সূর্যরশ্মি যেমন সূর্যের অংশ হইলেও সর্বদাই সূর্যের বাহিরে অবস্থান করে, সেইরূপ জীবগণও পরব্রহ্মের স্বরূপের বাহিরেই অবস্থান করে। সূর্যরশ্মি যেমন কখনও সূর্য