পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/৭২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অচিন্ত্যভেদাভেদবাদ পরিপক্ক অবস্থাই প্রেম। এইজন্য প্রেমকে সাধ্য ভক্তি বলা হয়। বস্তুতঃ কৃষ্ণপ্রেম সাধ্য বস্তু নহে, উহা নিত্যসিদ্ধ। উহা ভগবানের স্বরূপশক্তির অন্তর্গত হলাদিনীশক্তির বৃত্তিবিশেষ। ভগবানের স্বরূপশক্তির বাহিরে উহার অবস্থান নাই। সুতরাং প্রাকৃত জীবের প্রাকৃত মনে উহার অবস্থান | সম্ভব নহে। শুদ্ধ সাধনভক্তির ফলে চিত্ত বিশুদ্ধ হইলে তথায় প্রেমের আবির্ভাব হয় মাত্র। প্রেমের শক্তি অসাধারণ। প্ৰেম ভগবানকে দেখাইতে এবং বশীভূত করিতে পারে। কৃষ্ণ অপেক্ষা আপন জীবের আর কেহ নাই। জীব স্বরূপতঃ কৃষ্ণের সেবক ; কৃষ্ণসেবার বাসনাই তাহার স্বরূপগত ধর্ম। কৃষ্ণের কৃপায় মায়ার প্রভাব বিদূরিত হইলে জীবের এই সম্বন্ধজ্ঞান ও সেবাসনা আপনা-আপনি স্ফুরিত হইতে থাকে। প্রথমাবস্থায় এই সেবাসনা প্রাকৃত মনের বৃত্তিরূপেই আবির্ভূত হয়, কিন্তু যখন ভগবৎকৃপাপুষ্ট সাধনের ফলে প্রাকৃত মন শুদ্ধসত্ত্বের সহিত তদাত্ম প্রাপ্ত হয় তখন এই সেবাবসিনাও উহার সহিত তাদাত্ম প্রাপ্ত হইয়া অপ্রাকৃত হইয়া যায়। এই অপ্রাকৃত সেবাসনা যখন শ্রীকৃষ্ণনিক্ষিপ্ত হলাদিনীর | বৃত্তিবিশেষের সহিত মিলিত হয় তখন তাহাকে প্রেম আখ্যা দেওয়া হয়। পরম কারুণিক কৃষ্ণ সর্বদাই তঁাহার | লাদিনীর বৃত্তিবিশেষকে ইতস্ততঃ বিক্ষিপ্ত করিতেছেন। প্রাকৃত চিত্ত মলিনতাবশতঃ উহা গ্রহণ করিতে পারে না। বিশুদ্ধ চিত্তে উহার আবির্ভাব হয়। কিন্তু উহা একই সময়ে পূর্ণতমরূপে আবির্ভূত হয় না, বিভিন্ন স্তরে প্রকটিত হয়। প্রেমের আবির্ভাবে শ্রীকৃষ্ণে অত্যন্ত মমতা জন্মে ; ফলে শ্রীকৃষ্ণের ভগবত্তা সম্বন্ধে জ্ঞান তিরােহিত হয়। এই জগতে সখা, পুত্র, পতি প্রভৃতির সহিত মানুষের সম্বন্ধ যত ঘনিষ্ঠ, নিত্যধামে কৃষ্ণের সহিত তাহার পরিকরদের সম্পর্ক তদ| পেক্ষাও ঘনিষ্ঠ। ভক্ত কখনও নিজের সুখের লেশমাত্র কামনা করেন না; তিনি কৃষ্ণকে সুখী করিতেই ব্যস্ত। কৃষ্ণচিন্তা ভিন্ন তাহার চিত্তে আর কিছু নাই। তাহার প্রেমবন্ধন ছিন্ন হওয়ার কারণ উপস্থিত হইলেও ছিন্ন হয় না। প্রেমের গাঢ়তম অবস্থায় ভক্ত কৃষ্ণকে সুখ দেওয়ার উদ্দেশ্যে বেদ, ধর্ম, স্বজন, সমাজাদি ত্যাগ করিয়া স্বীয় অঙ্গ দ্বারাও কৃষ্ণের সেবা করিতে যত্নবান হন। ব্রজের গোপীগণের মধ্যেই প্রেমের সর্বাধিক বিকাশ। গােপীগণ শ্রীরাধার কায়বহরূপ। শ্রীরাধার প্রেমই সর্বাতিশায়ী। বহুকান্তা ব্যতীত উজ্জ্বলরসবৈচিত্রীর উল্লাস হয় না বলিয়া শ্রীরাধা অসংখ্য গােপীরূপে আত্মপ্রকাশ করিয়াছেন। সাধকের চিত্তে সর্বপ্রথম প্রেমের যে স্তরের আবির্ভাব হয়, তাহার নাম প্রেমাঙ্কুর, ভাব বা রতি। রতির পরের