পাতা:Bharatkosh 1st Vol.pdf/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


________________

অজন্টা মধ্যে চারিটি (১, ২, ১৬ এবং ১৭) স্থাপত্যে, ভাস্কর্যে ও চিত্রণে অনবদ্য। এইগুলির মধ্যে ১৬ নং বাকাটরাজ হরিষেণের (৪৭৫-৫০০ খ্রী) মন্ত্রী বরাহদেবের এবং ১৭ নং হরিষেণেরই অধীন একজন সামন্তনৃপতির উৎসর্গ। এই পর্বের চৈত্যগৃহত্রয়ের ২৯ সংখ্যক গুহা অসমাপ্ত। অপর দুইটিতে ( ১৯ ও ২৬) পূর্বেকার গঠনরীতি অনুসৃত হইলেও লক্ষণীয় পার্থক্যও বিদ্যমান। প্রথমত, অভ্যন্তরভাগ অলংকারবহুল কারুকার্যখচিত; দ্বিতীয়তঃ, আরাধ্যসুপে বুদ্ধমূর্তি উৎকীর্ণ। " শৈলখাত স্থাপত্যের বিবর্তনধারায় অজণ্টার গুহারাজির । ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। অজন্টার চিত্রকলার প্রতি বিশ্ববাসীর দৃষ্টি নিবদ্ধ হওয়ায় এখানকার স্থাপত্য ও ভাস্কর্য বিভব সাধারণতঃ উপেক্ষিত। অথচ, ইহাদের মূল্যও কম নহে। অজন্টার চিত্রাঙ্কন দুইটি বিভিন্ন সময়ে সম্পন্ন হয়। উভয় পর্বের অন্তর্বর্তীকাল সুদীর্ঘ। প্রথম পর্ব খ্রীষ্টপূর্ব দ্বিতীয় ও প্রথম শতকের অন্তভুক্ত। আলেখ্যের পরিচ্ছদ পরিধানপদ্ধতি, উষ্ণীষ ও অলংকারাদি সঁচী ও ভারুতের উগত মূর্তির ন্যায়। এই পর্বের চিত্রাবলীতে শিল্পী-হস্তের নিপুণ কাজ অনুভব করা যায়। সমসাময়িক অন্য ভারতীয় ভাস্কর্য অপেক্ষা ইহার। উচ্চস্তরের। ইহাদের পূর্ববর্তী ও সমসাময়িক চিত্র এখন প্রায় অবলুপ্ত ; সেইজন্য ভারতের চিত্রকলার ইতিহাসে ইহাদের গুরুত্ব খুবই বেশি। | চতুর্থ-পঞ্চম শতাব্দীতে স্থাপত্যকর্ম তৎপরতার পুনরুদ্দীপনের সঙ্গে সঙ্গে চিত্রাঙ্কনের দ্বিতীয় পর্বের আরম্ভ এবং পরবর্তী তিন শতাব্দী ইহার ব্যাপ্তি। বিভিন্ন শিল্পীর রচিত বলিয়া শিল্পমানে ইতর-বিশেষ থাকিলেও পঞ্চম ও ষষ্ঠ শতকের চিত্ররাজি সৌন্দর্যে, ব্যঞ্জনায়, রঙের পরিকল্পনায় সুসমঞ্জস সার্থক রেখাবিন্যাসে বৈচিত্র্যে ও গতিশীলতায় সমৃদ্ধ। এই চিত্ররাজিতে নর-নারীর ললিত সৌন্দর্য ও বিচিত্র আবেগ নিখুত ও জীবন্ত রূপ পরিগ্রহ করিয়াছে। বাস্তবিকই প্রাচীর-চিত্রাঙ্কনে চিত্রকর এখানে সর্বোৎকৃষ্ট শিল্পমানের দৃষ্টান্ত প্রতিষ্ঠা করিয়াছেন। এই মানের অবনতি পরিলক্ষিত হয় সপ্তম শতকের আলেখ্যে। এই সময়কার বুদ্ধের ছবিগুলি নিষ্প্রাণ ও ভাবব্যঞ্জনাবর্জিত। কক্ষের প্রাচীর ও স্তম্ভের চিত্রাবলীর উপজীব্য বিষয় একান্তই ধর্মভাবাপন্ন। বুদ্ধদেব, বােধিসত্ত্ববৃন্দ, বুদ্ধদেবের জীবনের বিচিত্র ঘটনা ও জাতকের কাহিনী অবলম্বনে এইগুলি অঙ্কিত। এই আলেখ্যরাজিতে সমসাময়িক রাজপ্রাসাদ, কুটির, নগর, গ্রাম, আশ্রম ইত্যাদির জীবনযাত্রা প্রতিফলিত হইয়াছে। উপরন্তু চিত্রগুলি তদানীন্তন সমাজের সংস্কারবিশ্বাস, আচার-ব্যবহার, রীতি-নীতি, পােশাক-পরিচ্ছদ,