প্রবাদমালা (১৮৬৮)/এ

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন


২৬২। এ অপেক্ষা সে ভাল।
২৬৩। এঁচোড়ে পাকা।
২৬৪। এঁট্যো কুড়ের পাত স্বর্গে যায় না।
২৬৫। এঁটো খায় মিঠার লোভে।
২৬৬। এক ওয়াকিব হাল, আর সাত নবিসিন্দা সমান
২৬৭। এক কলসী দুদে এক ছিটে চোনা দেওয়া।
২৬৮। এক কাণ দিয়ে শুনে, অন্য কাণ দিয়ে বেরিয়ে যায়।
২৬৯। এক গাঁয়ে ঢেঁকি পড়ে, আর গাঁয়ে মাথা ব্যথা।
২৭০। একগুণ ছেলের তিনগুণ বিক্রম।
২৭১। এক চাকায় রথের গতি হয় না।
২৭২। এক জাতির লাঙ্গুলে পাড় পড়িবে।
২৭৩। এক দ্বার মোদা, হাজার দ্বার খোলা।
২৭৪। এক পা জলে, এক পা স্থলে।
২৭৫। এক পাগলে রক্ষা নাই, সাত পাগলে মেলা।
২৭৬। এক পালি ধানে মহাভারত করা।
২৭৭। এক পুত্ত্র অন্ধের নড়ি।
২৭৮। এক পুত্ত্র পুত্ত্র নয়, এক টাকা টাকা নয়, এক চক্ষু চক্ষু নয়।
২৭৯। এক বারের রোগী, অন্য বারের রোজা (চিকিৎসক)।
২৮০। এক বেঁড়ে যার, সকল গাঁ তার।
২৮১। এক বেলা ভাগ, এক বেলা ঠিকা।
২৮২। এক মণ তেলও পুড়িবে না, রাধাও নাচিবে না।
২৮৩। এক মন হইলে সমুদ্র শুকায়।
২৮৪। এক যুক্তির পাড়া, গাছে বিয়োয় ঘোড়া।
২৮৫। এক লড়িতে সাত সাপ মারা।
২৮৬। এক সঙ্গে থাকিলে হাঁড়িতে২ ঠেকা ঠেকি হয়।
২৮৭।

এক সিউনি জল সেঁচে কোমরে দিলে হাত।
এই মুখে খাবে তুমি বাগ্‌দিনীর ভাত।

২৮৮। এক হাত নড়ে না, দু হাত নড়ে।
২৮৯।

এক হেঁসেলে তিন রাঁধুনি।
পড়ে মরে তাঁর ফেন গালুনি।

২৯০। একান্ন পাপও পাপ, বায়ান্ন পাপও পাপ।
২৯১। একা রামে রক্ষা নাই, সুগ্রীব দোসর।
২৯২। এ কি? ওট্‌ছুঁড়ি তোর বিয়ে।
২৯৩। এ কি কাকের ভাত রাখা।
২৯৪। একি ছুঁচা মারিয়া হাত গন্ধান।
২৯৫। এ কি ছেলের হাতের পিটে।
২৯৬। একি তামাসা পেয়েছ।
২৯৭। একি পরের ভাতে বেগুণ পোড়া।
২৯৮। একি পাকা ধানে মই দেওয়া।
২৯৯। একি মগের মুলুক পেয়েছ।
৩০০। একি শাক্‌ দিয়ে মাচ ঢাকা।
৩০১। একি সাপের পাঁচ পা দেখেছ।
৩০২। একে চায়, আরে পায়।
৩০৩। একে মন্‌সা, তায় ধূনার গন্ধ।
৩০৪। একে মাঘে জাড় যায় না।
৩০৫। এখন আবার ফুঁ ফুটেছে।
৩০৬। এখন ছকুর সে কাল আছে।
৩০৭। এ তো, ছেলের হাতে পিঠে নয়, যে ভোগা দিয়ে খাবে।
৩০৮। এ দেখি ঘোড়ার কামড়।
৩০৯। এবার এরে কালে ধরেছে, আর রক্ষা নাই।
৩১০। এবার কুপো কাইত।
৩১১। এবার ছকুর ছখান লাঙ্গল বয়।
৩১২। এবার তোমার গয়া হইল।
৩১৩। এবার তোমার শ্রাদ্ধ শান্তি সপিণ্ডীকরণ করবো।
৩১৪। এবার পোয়া বার তের।
৩১৫। এ বেটা অঁতি উলুবনে সাঁতার পাড়ে।
৩১৬।

এ বেটার পরণে নাই তেনা।
প্রতি হাটে গুড়ক তামাক কেনা॥

৩১৭।

এমন পদার্থ ছেড়ে।
মালা জপে কোন্‌ ভেড়ের ভেড়ে।

৩১৮। এমন বুদ্ধিতে কচু পোড়া খাও।
৩১৯। এ যে কাজির কাছে হিন্দুর পরব্‌ ধার্য্য করা।
৩২০। এ কে কোলে আঁধার।
৩২১। এ যে চাটা দূর্ব্বা, পড়ে আছে দেখ্‌ছি।
৩২২। এ যে ছুঁচ্‌ হয়ে সেঁধিয়ে, কাল হৈয়ে বেরুল।
৩২৩। এ যে দিনে ডাকাতি।
৩২৪। এ যে দেখি মেঘ চাহিতে জল।
৩২৫। এ যেন ভেড়ার গোয়াল।
৩২৬। এ যে নবাব সেরাজউদ্দৌলা দেখি।
৩২৭। এ যে রাক্ষুসে ভোজন।
৩২৮। এ যে হাতির পা ঠেলা।
৩২৯। এলায়২ ছাড়্‌তে পারিলে হয়।
৩৩০। এলো চুলে তেল দেয়না।
৩৩১। এলো শ্রাদ্ধের গুতা দক্ষিণা।
৩৩২।

এসে যায় শিক্ষায় নীত।
তাকে বলি পুরোহিত॥