প্রবাদমালা (১৮৬৮)/অ

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

১। অকর্ম্মান্বিত বিধি হইলে বাঁধির বশতাপন্ন হয়।
২। অকস্মাৎ বজ্রাঘাৎ।
৩। অঙ্গারঃ শতধৌতেন মলিনত্বং ন মুঞ্চতি।
৪। অজার যুদ্ধ আঁটুনি সার।
৫। অজ্ঞানের পাপ জ্ঞানে যায় জ্ঞানের পাপ তীর্থে যায়।
৬। অতি খাটো হইওনাকো ছাগলে মুড়িয়ে খাবে।
৭। অতি দানে বলির পাতালে হৈল ঠাঁই।
৮। অতি বাইড় করো না ঝড়ে ভেঙ্গে যাবে।
৯। অতি বুদ্ধি হাতে দড়ি।
১০। অতি ভক্তি চোরের লক্ষ্মণ।
১১। অতির কিছুই ভাল নয়।
১২। অতিশয় কোন কর্ম্ম ভাল নয়।
১৩। অতি শব্দ কিছু নয়।
১৪। অদন্তের হাসি, দেখ্‌তে বড় খুসী।
১৫। অদ্য ভক্ষ্যো ধনুর্গুণঃ।
১৬। অদৃষ্ট করলা ভাতে, বিচি গজ্‌২ বুড়োর পাতে।
১৭। অনভ্যাসের ফোঁটা কপাল চড়্‌ চড়্‌ করে।
১৮। অনেক জলের মাচ।
১৯। অনেক সন্ন্যাসীতে গাজন নষ্ট।
২০। অন্ধকে দর্পণ দেখান।
২১। অন্ধ জাগো না কিবা রাত্রি কিবা দিন।
২২। অন্ধের দিবা রাত্রি সমান।
২৩। অন্ধের নড়ি।
২৪। অন্ন চিন্তা চমৎকারা, ঘরে ভাত নেই জীয়ন্তে মরা।
২৫। অন্নদানের পর আর দান নাই।
২৬। অন্ন বিনা ছন্ন ছাড়া।
২৭। অপরম্বা কিং ভবিষ্যতি।
২৮। অবাক্‌ কলি অঘোরে, গুড়ছোলা খেলে গা ঘোরে।
২৯। অবাক্‌ কলি অবতার ছুঁচোর গলায় চন্দ্রহার।
৩০। অবাক্‌ কলি পাপে ভরা।
৩১। অবাক্‌ কি কলিকাল, মণ্ডায় লাগে বড় ঝাল।
৩২। অভিমানে গুম্‌রে উঠে।
৩৩। অভিমানে বালির দত্ত যান্‌ গড়াগড়ি।
৩৪। অমনি পাতে২ সরা
৩৫। অমাবস্যার প্রদীপ টিপ্‌২ করিতেছে।
৩৬। অর্‌গুণ নাই বর্‌গুণ আছে।
৩৭। অরাঁধুনীর হাতে পড়ে রুইমাছ কাঁদে।
৩৮। অর্থস্য পুরুষো দাসঃ।
৩৯। অলভ্যের বাণিজ্য কচ্‌কচি সার।
৪০। অল্প আগুনে তামাক খাওয়া, ছোট লোকের খোষামোদ করা সমান।
৪১। অল্প জলে পুঁটিমাচ ফর্‌ ফর্‌ করে।
৪২। অল্প জলের মৎস্য।
৪৩। অল্প মাইরে কান্দে বাঁদী, আর অল্প বোঝায় পোড়ে চাঁদি।
৪৪। অশ্বত্থামা হত ইতি গজঃ।
৪৫। অশৈরন সৈতে নারি।
৪৬। অসৎ কর্ম্মের বিপরীত ফল।
৪৭। অসতী কখন সতী হয় না।
৪৮। অহঙ্কারে ছার্‌ খার্‌।
৪৯। অহঙ্কারে পথ দেখিতে পায় না।
৫০।

অহঙ্কারে মত্ত হয়ে ফের নানা ফাঁদে,
বামন হইয়া হাত বাড়াইলে চাঁদে,
আপন কুঠার হানিলে আপনার পায়।
অহঙ্কার ভরে ডিঙ্গা ডুবালে দরিয়ায়॥

৫১। অহি নকুলতা।