প্রবাদমালা (১৮৬৮)/ই

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন


১৮৪। ইচড়ে পাকা।
১৮৫। ইচ্ছাপুত্রের মায়ের আদর।
১৮৬। ইটে নাই ভিটে নাই বাহিরে মর্দ্দানি।
১৮৭। ইতোভ্রষ্ট স্ততোনষ্টঃ।
১৮৮। ইনিও একটী ক্ষুদ্র রাক্ষস।
১৮৯। ইনি কৃষ্ণপক্ষের নিশি।
১৯০। ইনি কেবল শ্রীপঞ্চমী।
১৯১। ইনি জয়কেতে।
১৯২। ইনি ন্যাক্‌ড়ার আগুন।
১৯৩। ইনি যেন গুড় ব্যাঘ্র।
১৯৪। ইনি যেন চিনির পুতুল।
১৯৫। ইনি যেন ডুম্বুর ফুল!
১৯৬। ইনি যেন দাতাকর্ণ।
১৯৭। ইনি যেন ধনুর্দ্ধর।
১৯৮। ইনি যেন নবান্নের কাক।
১৯৯। ইনি শাঁকারির করাত।
২০০। ইনি শিঙ্গা বরদারের পরুয়া বরদার।
২০১। ইন্দুর জানে না যে বিড়াল কাণা।
২০২। ইন্দুর বড় সাঁতারু তার মাথা ভরা জট।
২০৩। ইন্দুরের গোলাম চামচিকে। তারে বলে ঘর নিকে।
২০৪। ইহার উবুড় হস্ত কখন হয় নাই।
২০৫। ইহার পাতা কাটিতে ভর সয় না।
২০৬। ইহার মুখ দেখ্‌লে প্রায়শ্চিত্ত করিতে হয়।
২০৭। ইহার মুখ যেন হাড়ির কোদাল।
২০৮। ইল্লৎ ফায় ধুলে স্বভাব যায় মলে।