বেতালপঞ্চবিংশতি

উইকিসংকলন থেকে
Jump to navigation Jump to search

BETALPANCHABINSHATI

 

BY

ISWARACHANDRA VIDYASAGARA.

 

 

NINTH EDITION.

 
 

CALCUTTA:

 

PRINTED BY KHETTERMOHUN MOOKERJEA AT

T H E S A N S K R I T P R E S S,

NO. 159, CORNWALLIS STREET.

1868.

বেতালপঞ্চবিংশতি

 

শ্ৰীঈশ্বরচন্দ্রবিদ্যাসাগরপ্রণীত।

 

 

নবম সংস্করণ।

 
 

কলিকাতা

 

সংস্কৃত যন্ত্র

সংবৎ ১৯২৫

 


বিজ্ঞাপন

 

কালেজ অব্‌ ফোর্ট উইলিয়ম নামক বিদ্যালয়ে তত্ৰত্য ছাত্রগণের প্রথমপাঠার্থে বাঙ্গালা ভাষায় হিতোপদেশ নামে যে পুস্তক নির্দিষ্ট ছিল তাহার রচনা অতি কদৰ্য্য। বিশেষতঃ কোন কোন অংশ এমন দুরূহ ও অসংলগ্ন যে কোন ক্রমেই অর্থবোধ ও তাৎপৰ্য্যগ্ৰহ হইবার বিষয় নহে। তৎপরিবর্তে পুস্তকান্তর প্রচলিত করা উচিত ও অবশ্যক বিবেচনা করিয়া উক্ত বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মহামতি শ্ৰীযুক্ত মেজর জি টি মার্শল মহোদয় কোন নুতন পুস্তক প্রস্তুত করিতে আদেশ করেন। তদনুসারে আমি বৈতালপচীসীনামক প্রসিদ্ধ হিন্দী পুস্তক অবলম্বন করিয়া এই গ্রন্থ লিখিয়া ছিলাম।

 যৎকালে প্রথম প্রচারিত হয় আমার এমন আশা ছিল না বেতালপঞ্চবিংশতি সৰ্ব্বত্র পরিগৃহীত হইবেক। কিন্তু সৌভাগ্যক্রমে বাঙ্গালা ভাষার অনুশীলনকারী ব্যক্তিমাত্রেই আদরপূর্ব্বক গ্রহণ করিয়াছেন এবং এতদ্দেশীয় প্রায় সমুদয় বিদ্যালয়েই প্রচলিত হইয়াছে। ফলতঃ দুই বৎসরের অনধিককালমধ্যেই প্রথম মুদ্রিত সমস্ত পুস্তক নিঃশেষ রূপে পর্য্যবসিত হয়।

 প্রায় সংবৎসর অতিক্রান্ত হইল পুস্তকের অসদ্ভাব হুইয়াছে। কিন্তু কোন কোন কারণবশতঃ আমি পুনর্মুদ্রাকরণে এ পর্য্যন্ত পরাঙ্মুখ ছিলাম। পরিশেষে গ্রাহকমণ্ডলীর অগ্রহাতিশয় দর্শনে দ্বিতীয় বার মুদ্রিত ও প্রচারিত করিলাম। যে যে স্থান অসঙ্গত ও অপরিশুদ্ধ ছিল সুসঙ্গত ও পরিশোধিত হইয়াছে এবং অশ্লীল পদ বাক্য ও উপাখ্যানভাগ সকল পরিত্যাগ করা গিয়াছে। এক্ষণে বেতালপঞ্চবিংশতি পূৰ্ব্ববৎ সর্ব্বত্র পরিগৃহীত হইলে শ্রম সফল বোধ করিব।

শ্ৰীঈশ্বরচন্দ্রশৰ্ম্মা
 

  কলিকাতা।
 ১০ ই ফাগুন। সংবৎ ১৯০৬।

পরিচ্ছেদসমূহ (মূল গ্রন্থে নেই)

সূচীপত্র

এই লেখাটি ১ জানুয়ারি ১৯২৩ সালের পূর্বে প্রকাশিত এবং বিশ্বব্যাপী পাবলিক ডোমেইনের অন্তর্ভুক্ত, কারণ উক্ত লেখকের মৃত্যুর পর কমপক্ষে ১০০ বছর অতিবাহিত হয়েছে অথবা লেখাটি ১০০ বছর আগে প্রকাশিত হয়েছে ।