হিতদীপ

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

হিতদীপ।

অর্থাৎ

বালক বালিকা গণের শিক্ষার্থ হিতগর্ভ

উপদেশাবলী।

অাহীরীটোলা বঙ্গবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক

শ্ৰীগুৰুনাথ সেন গুপ্ত কর্ত্তৃক

প্রণীত ও প্রকাশিত।

 

 

কলিকাতা,

৪৪ নং, মাণিকতলা ষ্ট্ৰীট্—স্কুলবুক্‌ প্রেসে

শ্রীচণ্ডীচরণ রায় দ্বারা মুদ্রিত।


সন ১২৯৪ সাল।

হিতদীপ।

অর্থাৎ

বালক বালিকা গণের শিক্ষার্থ হিতগর্ভ

উপদেশাবলী।

অাহীরীটোলা বঙ্গবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক

শ্ৰীগুৰুনাথ সেন গুপ্ত কর্ত্তৃক

প্রণীত ও প্রকাশিত।

 

 

কলিকাতা,

৪৪ নং, মাণিকতলা ষ্ট্ৰীট্—স্কুলবুক্‌ প্রেসে

শ্রীচণ্ডীচরণ রায় দ্বারা মুদ্রিত।


সন ১২৯৪ সাল।

প্রণাম।

নমি আমি পরম পুরুষ সনাতনে
ব্যাঘাত বিপদ যায় যাঁহার স্মরণে।
জননী জনক দোঁহে নমি এক মনে
অতুল যাঁদের দয়া নিখিল ভুবনে।

নমি সে সুগুণশীলা জনকনন্দিনী
রাম-হৃদি সরে যিনি ফুল্ল কমলিনী।
যাহার আশ্রয় লাভে রতন-আকর,
এ ভুবনে অদ্বিতীয় রতন-আকর
হইলা কলুষহীন বিমল চরিত,
করিলা কবিতা রসে জগৎ মোহিত।
ধন্য ধন্য তুমি মাতঃ। কমলা-রূপিণি।
শিখুক চরিত তব নিখিল-কামিনী,
ঘোষুক তোমার যশঃ দেশ-দেশান্তর,
পূরুক তোমার সুত বাসনা নিকর।
এস মা বিমলে! কর কৃপা দৃষ্টিপাত,
যেগুণে নীরস তরু ধরে রসজাত,
যেই কৃপা গুণে অাদি-কবিতা সৃজন,
দয়াশীলে! সেই কৃপা কর বিতরণ।

 

গ্রন্থের উদ্দেশ্য।

রবিশশি-করে বটে আলোকে ভুবন,
মন্দির আন্তর-তম কিন্তু নাহি যায়,
লঘু দীপ সে তিমিরে বিদুরে যেমন,
তথা হিত হিতদীপ শিশুর হিয়ার।

লেখক লোলুপ নহে কবিযশ তরে,
ইহার নহে ত হেতু বন্ধু-অনুরোধ,
সখা-শতদলে ফুল্ল রাখা ভব সরে
চিরদিন—নহে হেতু; শুধু শিশুবোধ।

সংস্কৃত-সাগর মাঝে পেয়ে মণিচয়
লভিয়া প্রকৃতিদেবী প্রসাদ রতন,
করিয়া যতন এই রতন-নিচয়
মালাকারে শিশুগণে করিনু অপর্ণ।

আশুতোষ শিশুগণ লভে উপকার
যদি এ মালিকা গলে করিয়া ধারণ
তা’হলে সফল জানি আয়াস স্বীকার
আনন্দ নীরধি নীরে হইব মগন।

 

উৎসর্গ পত্র।

Rule Segment - Span - 40px.svg Rule Segment - Circle - 6px.svg Rule Segment - Circle - 6px.svg Rule Segment - Star - 10px.svg Rule Segment - Circle - 6px.svg Rule Segment - Circle - 6px.svg Rule Segment - Span - 40px.svg

অশেষ গুণালঙ্কারভূষিতা চিরানুগ্রহকারিণী

 

শ্ৰীমতী স্বর্ণময়ী দেবীর

 

প্রে ম স মু জ্জ ল বি ম ল  ক র ক ম লে

 

কৃতজ্ঞতার

 

নি দ র্শ ন - স্ব রূ প

 

এই গ্রন্থোপহার

 

প্রেমোপহাররূপে

 

সাদরে

 

সমর্পণ করিলাম।

 

ইতি।

 
গ্রন্থকার। 

পরিচ্ছেদসমূহ (মূল গ্রন্থে নেই)

এই লেখাটি বর্তমানে পাবলিক ডোমেইনের আওতাভুক্ত কারণ এটির উৎসস্থল ভারত এবং ভারতীয় কপিরাইট আইন, ১৯৫৭ অনুসারে এর কপিরাইট মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে। লেখকের মৃত্যুর ৬০ বছর পর (স্বনামে ও জীবদ্দশায় প্রকাশিত) বা প্রথম প্রকাশের ৬০ বছর পর (বেনামে বা ছদ্মনামে এবং মরণোত্তর প্রকাশিত) পঞ্জিকাবর্ষের সূচনা থেকে তাঁর সকল রচনার কপিরাইটের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যায়। অর্থাৎ ২০১৭ সালে, ১ জানুয়ারি ১৯৫৭ সালের পূর্বে প্রকাশিত (বা পূর্বে মৃত লেখকের) সকল রচনা পাবলিক ডোমেইনের আওতাভুক্ত হবে।