পাতা:ইস্তাহার (বিশ্বজ্ঞান প্রকাশনী).pdf/২১

উইকিসংকলন থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
শকুনির পাশা

শকুনির পাশার যাদু কুরুক্ষেত্রের দামামা বাজাল
পূবে আর পশ্চিমে। পাণ্ডবে কৌরবে।
মরা হাড়ে ভেন্ধি দিয়ে গড়া শক্তিমত্ত বহুরূপী পাশা।
নগ্ন অট্টহাসিতে উৎকট বীভৎস,
মৈত্রী বর্মে জুয়াড়ীর গোলক ধাঁধার ফাঁদ।
তাই শকুনির অবশ্যম্ভাবী জয়ের পৈশাচিক উল্লাসে
উগ্র উৎকণ্ঠায় যুগে যুগে কত কঙ্কাল হয়েছে ফসিল;
দ্বন্দ্বে সংঘাতে বিচ্ছেদে সংগ্রামে ইতিহাসের পাতা ভরা।
সুপ্রাচীন অট্টালিকার কক্ষে কক্ষে রন্ধ্রে রন্ধ্রে
কালো হয়ে উঠেছে কত বিষাক্ত অজগরী নিঃশ্বাস।

তবু যুগে যুগে মীরজাফর ফিরে আসে,
খাল কেটে আরো কুমীর আনা হয়,
নেকড়েকে আনা হয় লোকালয়ে।
আহা, ভাঙ্গনের সাধনায় মরে বেঁচে থাকা,
আর কুচক্রী শকুনি তার ক্রূর হাসি ছড়ায় বাতাসে

২৩