উইকিসংকলন:প্রধান পাতা

উইকিসংকলন থেকে
Jump to navigation Jump to search
Accueil scribe invert.png
উইকিসংকলনে আপনাকে স্বাগতম।
এটি একটি মুক্ত অনলাইন পাঠাগার যা যে কেউ সমৃদ্ধ করতে পারেন।
এখানে বর্তমানে ৩,০৮৩টি বই৭,৪৩৮টি রচনার ওপর ১৮জন স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছেন।
এটি ১০ আগস্ট ২০০৭ সালে যাত্রা শুরু করে।
ফেসবুকে আমাদের পাতা পছন্দ করুন টুইটারে আমাদের অনুসরণ করুন গুগল+ এ আমাদের অনুসরণ করুন
নির্বাচিত লেখা
নির্বাচিত লেখা

এই নির্বাচিত বইটির Mobi ফাইল ডাউনলোড করুন। এই নির্বাচিত বইটির EPUB ফাইল ডাউনলোড করুন। এই নির্বাচিত বইটির ODT ফাইল ডাউনলোড করুন। এই নির্বাচিত বইটির PDF ফাইল ডাউনলোড করুন।

শকুন্তলা (সিগনেট প্রেস সংস্করণ) 35.tif

শকুন্তলা প্রখ্যাত সাহিত্যিক অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত প্রথম গ্রন্থ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উৎসাহে অবনীন্দ্রনাথ মহাকবি কালিদাসের অভিজ্ঞানশাকুন্তলম্‌ নামক বিখ্যাত সংস্কৃত নাটক অবলম্বনে এই গ্রন্থটি রচনা করেন। এই গ্রন্থ রচনাকালে রবীন্দ্রনাথ অবনীন্দ্রনাথকে অভয় দিয়ে বলেছিলেন, “তুমি লেখই-না, ভাষার কিছু দোষ হয় আমিই তো আছি।” অবনীন্দ্রনাথের লেখনী ছিল সম্পূর্ণ রবীন্দ্রপ্রভাবমুক্ত, সে যুগে এক বিরল ঘটনা। লীলা মজুমদারের মতে, “অবনীন্দ্রনাথের রচনা সবই শিল্পীর মনের কথা, তাই ছবিগুলি যেমন বাঙ্ময়, গল্পগুলিও তেমনি চিত্রময়।” নিজের সম্বন্ধে লেখক বলতেন, অবন ঠাকুর ছবি লেখে। এই আশ্চর্য লালিত্যপূর্ণ, চিত্রসৌকর্যময় ভাষার গ্রন্থমালা, বাংলা সাহিত্যে যা আজও অননুকরণীয় হয়ে রয়েছে, তার প্রথম স্তবক এই শকুন্তলা; যা বাংলা ১৩০২ সালের শ্রাবণ মাসে বাল্য গ্রন্থাবলী-র প্রথম গ্রন্থরূপে প্রকাশিত হয়। কণ্ব মুনির আশ্রমে পালিতা গল্পের নায়িকা শকুন্তলার সঙ্গে রাজা দুষ্মন্তের প্রেম ও বিবাহ, দুর্বাসা মুনির অভিশাপে উভয়ের বিচ্ছেদ ও শাপমোচনের পর তাঁদের মিলনের কাহিনী এই গল্পের উপজীব্য।

এক নিবিড় অরণ্য ছিল। তাতে ছিল বড় বড় বট, সারি সারি তাল তমাল, পাহাড় পর্বত, আর ছিল—ছোট নদী মালিনী। মালিনীর জল বড়ো স্থির—আয়নার মতো৷ তাতে গাছের ছায়া, নীল আকাশের ছায়া, রাঙা মেঘের ছায়া—সকলি দেখা যেত। আর দেখা যেত গাছের তলায় কতগুলি কুটিরের ছায়া। নদীতীরে যে নিবিড় বন ছিল তাতে অনেক জীব জন্তু ছিল। কত হাঁস, কত বক, সারাদিন খালের ধারে, বিলের জলে ঘুরে বেড়াত। কত ছোট ছোট পাখি, কত টিয়াপাখির ঝাঁক গাছের ডালে ডালে গান গাইত, কোটরে কোটরে বাসা বাঁধত। দলে দলে হরিণ, ছোট ছোট হরিণ-শিশু, কুশের বনে, ধানের খেতে, কচি ঘাসের মাঠে খেলা করত। বসন্তে কোকিল গাইত, বর্ষায় ময়ূর নাচত। এই বনে তিন হাজার বছরের এক প্রকাণ্ড বটগাছের তলায় মহর্ষি কণ্বদেবের আশ্রম ছিল। সেই আশ্রমে জটাধারী তপস্বী কণ্ব আর মা-গৌতমী ছিলেন, তাঁদের পাতার কুটির ছিল, পরনে বাকল ছিল, গোয়াল-ভরা গাই ছিল, চঞ্চল বাছুর ছিল, আর ছিল বাকল-পরা কতগুলি ঋষিকুমার। তারা কণ্বদেবের কাছে বেদ পড়ত, মালিনীর জলে তর্পণ করত, গাছের ফলে অতিথিসেবা করত, বনের ফুলে দেবতার অঞ্জলি দিত।
(বাকি অংশ পড়ুন..., অন্যান্য নির্বাচিত লেখা খুঁজুন)


নতুন লেখা
নতুন লেখা
উইকিসংকলন অন্বেষণ
উইকিসংকলন অন্বেষণ
বিষয় নির্ঘণ্ট
সাম্প্রতিক বৈধকরণ
সাম্প্রতিক বৈধকরণ
মুদ্রণ সংশোধনের পরিসংখ্যান‎
মুদ্রণ সংশোধনের পরিসংখ্যান‎
  • মূল নামস্থান পরিসংখ্যান
    • পাতার সংখ্যা = ৭,৪৩৮টি
    • স্ক্যান পরিলেখন সংখ্যা = ৭,৪২৩টি
    • স্ক্যান পরিলেখন %= ৯৯.৮০
মুদ্রণ সংশোধনের পরিসংখ্যান‎
সহপ্রকল্প
উইকিসংকলন ছাড়াও অলাভজনক প্রতিষ্ঠান উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশন আরও বেশ কিছু বহুভাষিক ও উন্মুক্ত প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে:
Commons-logo.svg Wikibooks-logo.svg Wikidata-logo.svg Wikinews-logo.svg Wikipedia-logo-v2.svg Wikiquote-logo.svg Wikispecies-logo.svg Wikiversity-logo.svg Wikivoyage-Logo-v3-icon.svg Wiktionary-logo.svg Wikimedia Community Logo.svg
কমন্স উইকিবই উইকিউপাত্ত উইকিসংবাদ উইকিপিডিয়া উইকিউক্তি উইকিপ্রজাতি উইকিবিশ্ববিদ্যালয় উইকিভ্রমণ উইকিঅভিধান মেটা-উইকি