পাতা:আকাশ-প্রদীপ-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।

আকাশ-প্রদীপ

এলোমেলো ভাবনাগুলোর ফাঁকে ফাঁকে
টুকরো করে ওড়ায় ধ্বনিটাকে।
জাগা মনের কোন্ কুয়াশা স্বপ্নেতে যায় ব্যেপে,
ধোঁয়াটে এক কম্বলেতে ঘুমকে ধরে চেপে,—
রক্তে নাচে ছড়ার ছন্দে মিলে:—
“ঢাকিরা ঢাক বাজায় খালে বিলে।”

জমিদারের বুড়ো হাতি হেলে দুলে চলেছে বাঁশতলায়,
ঢংঢঙিয়ে ঘণ্টা দোলে গলায়।

বিকেল বেলার চিকন আলোর আভাস লেগে
ঘোলা রঙের আলস ভেঙে উঠি জেগে।
হঠাৎ দেখি বুকে বাজে টনটনানি,
পাঁজরগুলোর তলায় তলায় ব্যথা হানি।
চট্‌কা ভাঙে যেন খোঁচা খেয়ে,
—কই আমাদের পাড়ার কালো মেয়ে,—
ঝুড়ি ভরে মুড়ি আন্‌ত, আন্‌ত পাকা জাম,
সামান্য তার দাম,
ঘরের গাছের আম আন্ত কাঁচা মিঠা,
আনির স্থলে দিতেম তাকে চার আনিটা।
ঐ যে অন্ধ কলু-বুড়ির কান্না শুনি,—
ক’দিন হোলো জানিনে কোন্ গোঁয়ার খুনী

৫৬