পাতা:আত্মচরিত (৪র্থ সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Swፃ9,ፃፃ ] পীড়ার সময় পিতা মাতার ব্যবহার কাণ্ড করিয়াছেন। তিনি আমাকে একেবারেই ত্যাজ্যপুত্র করিয়াছিলেন। কিন্তু সেই পতিত পুত্র যখন বিপদে পড়িয়া স্মরণ করিল, তখন আর সুস্থির থাকিতে পারিলেন না। দরিদ্র ব্ৰাহ্মণ, সম্বল নাই। ৰে সম্বল হাতের কাছে পাইলেন, তাহাই লইয়া ছুটলেন। কি উদারত ! এই উদারতা তাহার প্রকৃতির এক মহা সদগুণ । তিনি আসিয়া কয়েকদিন থাকিয়া এক স্বতন্ত্র বাড়ী ভাড়া কমিীয়া মাকে আমার পরিচর্য্যার জন্য সেই বাড়ীতে রাখিয়া গেলেন। মাতাঠাকুরাণী বিরাজমোহিনীকে ও আমাকে লইয়া সেই বাড়ীতে রহিলেন। মাতাঠাকুরাণীর জপ তপ ব্ৰত নিয়ম উপবাসাদির মাত্ৰা অসম্ভবরাপ বাড়িয়া গেল। প্ৰায় প্রতিদিন দেড়মাইল পথ হাঁটিয়া গঙ্গাস্নান করিতে ফাইতেন ; এবং ইষ্টদেবতার চরণে শত শত প্ৰণাম করিয়া এই অধম পুত্রের জীবনভিক্ষা করিতেন। তৎপরে গৃহে ফিরিয়া আমারই রোগশয্যার পার্থে বসিয়া মাটী দিয়া শিব গড়িয়া পূজাতে প্ৰবৃত্ত হইতেন। আমি শুইয়া শুইয়া তাহার পূজার নিষ্ঠা দেখিতাম। ওদিকে বাবা মাকে আমার নিকট রাখিয়া গিয়াছেন বলিয়া গ্রামের জ্ঞাতিকুটুম্ববর্গের মধ্যে কেহ কেহ দলাদলি আরম্ভ করিলেন। বাবা তখন বজের ন্যায় কঠোর হইয়া দাড়াইলেন। “একঘরে করে করুক, আমার কৰ্ত্তব্য কাজ আমি করেছি,” বলিয়া সে দলাদলির প্রতি ক্ৰক্ষেপও করিলেন না।*। এই দলাদলিতে কিছুদিন গেল। এদিকে মা আমার সেবাতে বিব্রত। আমার প্রপিতামহ রামজয় স্থায়ালঙ্কার মহাশয় অতি সাধুপুরুষ ছিলেন। তিনি মায়ের মন্ত্রাদাতা শুরু ছিলেন। তার প্রতি আমাদের পরিবারস্থ সকলের ও জ্ঞাতিকুটুম্বের প্রগাঢ় ভক্তি ছিল। তার লাঠি, তার জপমালা, তার যোগপষ্ট প্রভৃতি বে কিছু চিহ্ন ঘরে ছিল সে সমুদ্ৰায়ের প্রতি মারা এত ভক্তি বে।

  • reffîl cwpan