পাতা:আনবারশোহেলি.djvu/২৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৩৬ चांनवांज्ञटण्ठांटङ्व्नि ! তদনন্তরে সকলে এক কালীন উষ্ট্রের প্রতি আক্রমণ করিয়া তাহার শরীরকে ছিন্ন ভিন্ন করিল, আর সেই নিরুপায় উষ্ট্র নিঃশব্দে রহিল । এই উপমার ঠাৎপৰ্য্য ইছ। জানিবে, যে ধূৰ্ত্ত ব্যক্তির বিশেষতঃ পরল্পর ঐক্য হইলে ছলনার কোন সূত্র অপেক্ষ থাকে না, দমনক কছিল, ইহার প্রতি বোধের কি উপায় চিন্ত৷ করিতেছ, শষ্ট্ৰীবক উত্তর দিল, যে অধুন। আমার চিন্ত৷ সদর্থ পথ হইতে অন্তরিত হইয়াছে, যুদ্ধ করা ভিন্ন অন্যান্য উপায় দৃষ্ট হয় না, যে হেতু ধন ও প্রাণ রক্ষার্থ মৃত্যু হইলে মোঙ্ক প্রাপ্তি হয়, আর দ্বিতীয়তঃ যদি ব্যাঘু হন্তে আমার মৃত্যু নিৰ্দ্ধারিত হইয়া থাকে, তবে একবার মর্যাদা ও দম্ভের সহিত প্রাণ ত্যাগ করাই উচিত । থ্যাতি সহ যদি মারি ইহাই উচিত । যে হেতু শরীর হয় মরণে নিশ্চিত । দমনক কহিল, বিজ্ঞ ব্যক্তির যুদ্ধ সূত্রে অগ্রে তৎপর ছয়েন না এবং উপস্থিত হইলেও পশ্চাতের অপেক্ষ। করেন না । স্বেচ্ছাপূর্বক গুরুতর আপদে উৎসাহ করা বিজ্ঞত্বের প্রতি প্রমাণ নহে, বরঞ্চ পণ্ডিতের মিত্রত ও সন্ধিস্থলে যুদ্ধ কৰ্ম্ম সমীপে বেষ্টিত হয়েন এবং শীল তার দ্বারা বিবাদ ভঞ্জনের চেষ্টাকে শ্রেষ্ঠ বিবেচনা করেস ।