পাতা:আনবারশোহেলি.djvu/৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আনবারশোহেলি । 84. যখন ঐ জ্ঞানী এই চতুদশ উপদেশ রাজার কর্ণ . গো চর করাইলেন তখন রাজা ঐ ব্যক্তিকে যথেষ্ট ক্ষে ছ করিলেন আর ঐ লিখিত পত্রকে মান পুরঃসর চুম্বন করিয়া রাজ্যের ব্যবস্থা স্বৰূপ করিয়া রাথি লেন আর কছিলেন যে স্বপুেতে যে এক ধনাগার আমি পাইয়। ছিলাম তন্মধ্যে যে এই গুপ্ত রত্নাগার সে রত্নাদির আগার নহে, আর পরমেশ্বরের অনুগ্ৰছে তে ঐহিক ধনাগার অামার এতদ্ধেপ যে ঐহিকের নিমিত্ত এ রত্নাদি ধনের কিছুই আবশ্যক নাই। সাহস দ্বারা যে এই কিঞ্চিৎ ধন আমি পাইয়াছিলাম সে পাওয়৷ না পাওয়া তুল্য । এই লিখিত পত্রের প্রশংসার কারণ পরমেশ্বরের প্রীত্যর্থে দরিদ্র ব্যক্তিদিগকে বিতরণ করা উচিত । ইহার যে ফল সে হোশঙ্গ বাদশাহকে অশে ( শুভকৰ্ম্মণ৪. ফলং শুভকারকই ভবতি ) এই শাস্ত্রানুসারে বেতন স্বৰূপ আমিও কিঞ্চিৎ পাইতে পারি, পরে রাজাজ্ঞানুসারে রাজমন্ত্রী ঐ সকল ধনাদি ঈশ্বরের প্রীত্যর্থে দরিদ্রগণকে বিতরণ করিলেন । দানের কারণ, হইয়াছে ধন, তাহা অামি পরিহরি । ষধ আছে ধন, তথা বিতরণ, দেখ বিবেচনা করি । পরে এ সকল অবস্থা হইতে সাবকাশ হইয় আপন রাজ্যে গমন করিয়া রাজ সিংহাসনোপরি উপবিষ্ট